২০১৬ সালের জন্য আইএফআইসি সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন বিয়ানীবাজারের কৃতিসন্তান লেখক ও স্থপতি শাকুর মজিদ। স্থপতি শাকুর মজিদ তার ‘ফেরাউনের গ্রাম’ বইয়ের জন্য এ পুরস্কার লাভ করেন।

শাকুর মজিদ বিয়ানীবাজার উপজেলার মাথিউরা ইউনিয়নের দোয়াখা গ্রামের মরুহুম আব্দুল মজিদ এবং ফরিদা খাতুনের জ্যৈষ্ঠ সন্তান। এ পুরস্কার ছাড়াও তিনি বাংলা একাডেমি পুরস্কার ২০১৭, সিলেট শিল্পকলা একাডেমি পদক ২০১৬, সমরেহ বসু সাহিত্য স্মৃতি পদক ২০১৫, রাগীব-রাবেয়া সাহিত্য পুরস্কার ২০১২ এবং টেলিভিশন এর শ্রেষ্ঠ নাট্যকার/পরিচালক হিসেবে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সংস্থার কুড়িটিরও বেশি পুরস্কার লাভ করেছেন।

স্থপিত শাকুর মজিদ ছাড়াও বিশিষ্ট লেখক খসরু চৌধুরী তার ‘সুন্দরবনের বাঘের পিছু পিছু’ বইয়ের জন্য এ পুরস্কার লাভ করেন। এছাড়াও বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হককে ‘সাহিত্যরত্ন সম্মাননা’ দেয়া হয়। ‘সাহিত্যরত্ন সম্মাননা’ এবছরই প্রবর্তন করা হয়।

পুরস্কার হিসেবে দুই লেখক প্রত্যেকে পেয়েছেন সার্টিফিকেট, ক্রেস্ট এবং পাঁচ লক্ষ টাকার চেক। আর ‘সাহিত্যরত্ন সম্মাননা’ হিসেবে হাসান আজিজুল হককে দেয়া হয়েছে সাহিত্যরত্ন সম্মাননা স্মারক এবং দশ লক্ষ টাকার চেক।

প্রসঙ্গগত, বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের সমসাময়িক লেখকদের সৃজন প্রতিভাকে স্বীকৃতি দেয়ার উদ্দেশ্যে ২০১১ সাল থেকে আইএফআইসি সাহিত্য পুরস্কার দেয়া হচ্ছে। সাহিত্যের ছয়টি শাখা থেকে প্রতিবছর দুজন লেখকে এই পুরস্কার দেয়া হয়। এ বছর থেকে যুক্ত হলো ‘সাহিত্যরত্ন সম্মাননা’। অর্থমূল্যের দিক থেকে এটিই বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় পুরস্কার।