গোলাপগঞ্জ উপজেলা অডিটোরিয়ামে ফলদ বৃক্ষমেলা-২০১৮ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিলেট জেলা প্রশাসক নুমেরী জামান বলেছেন, কৃষকদের অগ্রাধিকার দিয়ে বর্তমান সরকারের নানামুখী পদক্ষেপের কারনে কৃষি ক্ষেত্রে আমুল পরিবর্তন এসেছে। দেশে মাছ চাষ ও কৃষি উৎপাদন ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। আমাদের দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। আমাদের পরিবেশ ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্যকে ঠিকিয়ে রাখতে বেশী বেশী করে ফলদ ও ঔষধী গাছ রোপন করতে হবে। প্রতি বছর সরকার কৃষকদের সার, বীজ ও কৃষি উপকরণ বিতরণ করে আসছে। কৃষকরা যাতে সফল ভাবে চাষ করতে পারে সেজন্য তাদের বিভিন্ন ধাপে প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে উপজেলা কৃষি অফিস। এ উপজেলায় থাকা অনাবাদী চাষের উপযুগী জমি গুলোতে আবাদ করতে হবে। তাতে করে স্থানীয়দের খাদ্যের চাহিদা পূরন করে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি এবং বিদেশে রপ্তানী করা যাবে। তার জন্য কৃষকদের সেচ পাম্পসহ যত ধরনের সহযোগীতা দরকার উপজেলা কৃষি অফিস করবে। সরকারের আন্তরিক প্রয়াস ও কৃষকদের অক্লান্ত পরিশ্রমে বাংলাদেশ আজ বিশ্বের মধ্যে আলু উৎপাদনে ৫ম, মাছ চাষে ৪র্থ স্থানে ও শীতকালীন শাক-সবজি উৎপাদনে ৪র্থ স্থানে রয়েছে। আমাদের আর পিছনে থাকানোর সময় নেই। উন্নত বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশকে সমৃদ্ধশালী করতে ও একটি উন্নত রাষ্ট্র গঠনে সবাইকে ঐক্যের সাথে কাজ করতে হবে। তাহলে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে।

আজ শনিবার সকাল ১১টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ শরীফুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সমবায় অফিসার মো. জামাল মিয়ার পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাফিজ নজমুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সেক্রেটারী রফিক আহমদ, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. তউহীদ আহমদ, সাংবাদিক অজামিল চন্দ্র নাথ, কৃষিজীবিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নজরুল ইসলাম।

শুরুতে উপজেলা জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আব্দুল মতিনের পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি অফিসার মো. খায়রুল আমিন।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী মৎস্যজীবিলীগের সভাপতি নুরুল ইসলাম, কৃষক প্রতিনিধি নিজাম উদ্দিন, মাতাবুর রহমান, সাংবাদিক এনামুল হক এনাম, জাহেদুর রহমান জাহেদ, গোলাপগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের
সেক্রেটারী জাহিদ উদ্দিন, গোলাপগঞ্জ জার্নালিস্ট ফোরামের সেক্রেটারী খালেদ হোসেন, কোষাধ্যক্ষ আব্দুল আজিজ, প্রচার সম্পাদক ফাহাদ হোসাইন, সুলতান আবু নাসের প্রমুখ।

আলোচনা সভার পূর্বে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ফিতা কেটে বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন করেন। এছাড়া মেলার বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন।

এদিকে বেলা ১টায় গোলাপগঞ্জে শিশু ও নারী উন্নয়নে সচেনতামূলক যোগাযোগ কার্যক্রম (৫ম পর্যায়) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় সিলেট জেলা তথ্য অফিস কর্তৃক আয়োজিত দু’দিন ব্যাপী শিশু মেলা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার উপজেলাস্থ গোলাপগঞ্জ কোয়ালিটি স্কুল প্রাঙ্গনে সিলেটের বিভাগীয় তথ্য অফিসের উপ-পরিচালক জুলিয়া যেসমিন মিলি সভাপতিত্বে ও পরিচালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন সিলেটের জেলা প্রশাসক নুমেরী জামান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজ নজমুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলগের সেক্রেটারী রফিক আহমদ, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. তউহীদ আহমদ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা তথ্য অফিসের সহকারী অফিসার মো. আব্দুল সত্তার।

শিশু মেলা ও আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন গোলাপগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমন্ত ব্যানার্জী, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আশরাফুল হক, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা খাদিজা খাতুন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি গোলাম দস্তগীর খান ছামিন ছাড়াও গোলাপগঞ্জে বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে গোলাপগঞ্জ কোয়ালিটি স্কুলের গরীব ৫জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিক্ষা উপকরন সামগ্রী বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।