বড়লেখায় বিষপান করে এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন। তাঁর নাম খালেদ আহমদ (২৭)। তিনি উপজেলার দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নের দক্ষিণ কাঠালতলী গ্রামের এখলাছ উদ্দিনের ছেলে। 

নিহতের স্বজদের দাবি, খালেদ মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে শনিবার (০২ জুন) দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসাপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলাদায়ের করা হয়েছে।

হাসপাতাল, নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, খালেদের বাড়ি বড়লেখা উপজেলার দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নের দক্ষিণ কাঠালতলী গ্রামে হলেও তিনি বাবা-মা’র সাথে জেলার কুলাউড়া উপজেলায় থাকতেন। সেখানে তাদের নিজস্ব বাসা ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। তা তিনি দেখভাল করতেন।

সম্প্রতি পরিবারের সদস্যদের সাথে তার ঝগড়া হয়। ২৬ মে বাসা থেকে বেরিয়ে যান খালেদ। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। 

শুক্রবার (০১ জুন) রাতে তিনি এলাকায় (দক্ষিণ কাঠালতলী) এলেও বাড়ি যাননি। শনিবার সকালে বাড়ির পাশে রেলস্টেশনের পরিত্যাক্ত একটি কক্ষে স্থানীয় লোকজন তাকে মুমূর্ষ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। 

এ অবস্থায় খালেদকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

বড়লেখা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ সহিদুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শনিবার (০২ জুন) দুপুর দুইটায় বলেন, ‘লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।’