ফ্রান্স তথা পরবাসে নতুন প্রজন্মের কাছে একুশের চেতনা ছড়িয়ে স্থায়ী ভাবে নির্মাণ করা হয়েছে একটি শহিদ মিনার। ফ্রান্সে বসবাসরত বাঙালী তরুণদের মাঝে ভাষা আন্দোলনের আদর্শ ছড়িয়ে দিতে এই শহিদমিনার নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করেন ফ্রান্সে বসবাসরত বাঙালীরা। ফ্রান্সের দ্বিতীয় বৃহৎ প্রবাসী অধ্যুষিত এলাকা তুলুজ শহরে বহুল কাঙ্ক্ষিত এ শহিদ মিনারটি স্থাপন করা হয়েছে।

আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহিদ দিবসে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে এই শহিদ মিনার। ঐদিন সকাল ১০ টায় শহিদ মিনার উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হবে। উদ্বোধন করবেন তুলুজের মেয়র জন লুক মুডেনক।

শহিদমিনার নির্মাণের অন্যতম উদ্যোক্তা তুলুজ বাংলাদেশি কমিউনিটি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ফখরুল আকম সেলিম বলেন, দীর্ঘ দিনের প্রচেষ্ঠার ফলশ্রুতিতে কাঙ্ক্ষিত শহিদ মিনার স্থাপন করতে পেরে আমরা খুবই গর্বিত এবং উচ্ছ্বসিত।

তিনি জানান, ফ্রান্সের তুলুজে বাংলাদেশি কমিউনিটি অ্যাসোসিয়েশন, স্থানীয় মেয়র, সিটি কাউন্সিলসহ ফ্রান্স প্রবাসী কমিউনিটির বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যক্তিবর্গের সার্বিক সহযোগিতায় এই উদ্যোগের সফল বাস্তবায়ন ঘটেছে। এজন্য তিনি সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

ফ্রান্সে স্থায়ী শহিদ মিনার নির্মাণ প্রসঙ্গে- বাংলাদেশের খ্যাতিমান সাংবাদিক ও গবেষক দৈনিক কালের কণ্ঠ পত্রিকার বিশেষ প্রতিনিধি আজিজুল পারভেজের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, শহিদ মিনার বাঙালির গৌরব আর অহংকারের প্রতীক। যেখানেই বাঙলি সেখানেই গড়ে উঠছে শহিদ মিনার। নিঃসন্দেহে এটি আমাদের জন্য আনন্দ এবং গৌরবের।

তিনি বলেন, এরই মাধ্যমে বিশ্বসভায় ভিন্ন সংস্কৃতির পাশাপাশি বাঙালির গৌরবগাঁথা ইতিহাস-ঐতিহ্য, কৃষ্টি-কালচার তথা আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি ছড়িয়ে দিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজে ডিগ্রি ২য় বর্ষের পরীক্ষা শুরু