ডেস্ক। ১৬ জানুয়ারি ২০১৭।

আল্লামা ফুলতলী ছাহেব (র.) এর ঈসালে সাওয়াব মাহফিলে খাবার সংগ্রহ করতে গিয়ে পদদলিত হয়ে দুই জনের মৃত্যু ও ১৪জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে বিয়ানীবাজার উপজেলার শ্রীধরা গ্রামের আতিকুর রহমান রয়েছেন।

অন্য আহতরা হলেন সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার নূরুল ইসলামের পুত্র জাহাঙ্গীর হোসেন (১৯), সিলেটের টুকেরবাজার আব্দুর রউফ (৫০), হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জের আ‌বির হো‌সেন (২০), সুনামগঞ্জ জেলার ছাতকের আ: ওয়াহাব (৪৮), জকিগঞ্জ বেউরের আব্দুল ল‌তিফ (৫০), লামাকাজী আকিলপুরের হাফিজ আব্দুল হক (৪৫), জকিগঞ্জ দরগাবাহারপুরের আব্দৃল্লাহ (২০), জকিগঞ্জ জিয়াপুরের আব্দুল শহীদ (১৬), হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জের পা‌ঞ্জেরাই এলাকার আ‌মির হো‌সেন (২০), জকিগঞ্জ ইনাম‌তির আব্দুল হান্নান (২২)। গুরুতর আহত অপর তিন জনের পরিচয় পাওয়া যায়নি। তাদের সিলেট প্রেরণ করা হয়েছে।

জকিগঞ্জ সরকারি হাসপাতালের জরুরী বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত অন্নদা বিশ্বাস জানান, গুরুতর আহত ৩ জন কথা বল‌তে না পারায় তাদের প‌রিচয় জানা যায়‌নি। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে সিলেটে প্রেরণ করা হয়েছে। বিশেষ করে ১২ বা ১৩বছরের একটি শিশুর অবস্থা বেশ আশংকাজনক বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে জকিগঞ্জ থানা পুলিশের এএসআই কবির জানান, খবর পেয়ে রাত অনুমান পৌনে ৮টার দিকে পুলিশ কন্ট্রোল রুম থেকে দ্র্রুত সেখানে যাই। সেখানে গিয়ে আমিসহ অনেক পুলিশ মানুষদের বাচানোর চেষ্টা করি। কিন্তু এতো বাশের ব্যারিকেড ভেঙ্গে শত শত লোক খাবারের জন্য ধাক্কা দেয়।এতে পদদলিত হয়ে মারা যান দু’জন।