করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আসার দুদিন আগেই মৃত্যুবরণ করেছেন বিয়ানীবাজারের করোনা রোগী শ্যামল রায় (৬৫)। মৃত শ্যামল রায়ের বাড়ি বড়লেখা উপজেলায়, তিনি দীর্ঘদিন থেকে বিয়ানীবাজার উপজেলার লাউতা ইউনিয়নের জলঢুপ গ্রামে বসবাস করে আসছেন। রোববার রাত ১২টায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আবু ইসহাক আজাদ।

ডাঃ আবু ইসহাক আজাদ জানান, শ্যামল রায় নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকাবাস্থায় শরীরের করোনা ভাইরাসের উপসর্গ থাকায় গত ২৪ জুন তার নমুনা সংগ্রহ করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে প্রেরণ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পরে ২৬ জুন রাতেই তিনি মৃত্যুবরণ করেন এবং সিলেট নগরীতে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই তাকে দাহ করা হয়। সেজন্য বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ সম্পর্কে অবগত ছিলনা। শ্যামল রায়ের মৃত্যুর দুইদিন পর রোববার রাতে ওসমানী ল্যাব থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে তার করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আসে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী প্রবাসী অধ্যুষিত এ উপজেলায় এখন পর্যন্ত ৮৩জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩১জন এবং মারা গেছেন ৫জন।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বর্ণাঢ্য কর্মজীবনের ইতি টানলেন অধ্যাপক দ্বারকেশ চন্দ্র নাথ