নুর মোহাম্মদ। আগামী বছরের ৫ জানুয়ারি তার বয়স হবে ১০৭ বছর। এই বয়সেও নিজে নিজে হাটতে পারেন অনায়াসে। কথাবার্তায় ও বেশ সাবলীল। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে অংশ নেওয়া বেচে থাকা সিলেটের সর্বশেষ দুইজন যোদ্ধার মাঝে একজন এই নুর মোহাম্মদ।

বিশ্বযুদ্ধে অংশগ্রহনের স্বীকৃতি স্বরুপ সাবেক সৈনিকদের ব্রিটিশ সংগঠন রয়্যাল কমনওয়েলথ এক্স সার্ভিস লিগ (আরসিএল) এর পক্ষ থেকে নুর মোহাম্মদ সহ সিলেটের নয়জনকে দেওয়া হয়েছে আর্থিক অনুদান।

রবিবার সিলেট তালতলাস্থ জেলা সশ্রস্ত বাহিনী কার্যালয়ে তাদের অনুদানের নগদ অর্থ তুলে দেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

এ সময় আরিফুল হক বলেন “এই বয়সী মানুষজন যারা বিশ্বযুদ্ধে প্রত্যক্ষভাবে অংশ নিয়েছেন তারা আমাদের সিলেটের গর্ব। তাদের আর কি ধরনের সুযোগ সুবিধা প্রদান করা যায় সে ব্যাপারে কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহন করা হবে”।

সম্মুখ বিশ্বযুদ্ধে দক্ষিন সুরমা পশ্চিমপাড়া গ্রামের নুর মোহাম্মদ ছাড়াও অংশ নিয়েছিলেন হবিগঞ্জের আবুল হোসেন। তবে শারিরীক ভাবে বেশি অসুস্থ থাকায় তিনি নিজে এসে অনুদান গ্রহন করতে পারেন নি। এই দুজন ছাড়া মৃত সাতজন সৈনিকের স্ত্রী ও প্রতিনিধিদের হাতে নগদ অর্থ তুলে দেওয়া হয়।

অনুদান প্রদান অনুষ্ঠানে এ সময় উপস্তিত ছিলেন সিলেট জেলা সশস্ত্র বাহিনী কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব আবুল বশর চৌধুরি, মোহাম্মদ আব্দুস সালাম (অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক) মোহাম্মদ জামিল হোসেন (ইউডিএসি) প্রমুখ।

আরসিইএল ফান্ড হতে বৃটিশ সৈনিক এবং মৃত বৃটিশ সৈনিকের বিধবা স্ত্রীগনকে প্রেরিত এই আর্থিক অনুদানে আট জন পেয়েছেন ৩২ হাজার টাকা। আর একজন পেয়েছেন ১৬ হাজার টাকা।
অনুদানপ্রাপ্তদের তালিকা

০১। আবুল হােসেন। সৈনিক- ৩২,০২৭.৫০।
০২। নুর মােহাম্মদ। স্যাপার- ৩২,০২৭.৫০।
০৩। লীলা বেগম স্বামী মৃত আব্দুল গফুর চৌধুরী। কর্পোরাল- ৩২,০২৭.৫০।
০৪। হাছনা বিবি স্বামী মৃত শওকত আলী। সৈনিক- ৩২,০২৭.৫০।
০৫। জিন্নাতুননেসা স্বামী মৃত মােঃ মহিব উল্লাহ। সার্জেন্ট- ৩২,০২৭.৫০।
০৬। হাওয়ারুন বেগম স্বামী মৃত মছন মিয়া। সিগঃ ম্যান- ৩২,০২৭.৫০
০৭। রয়তুন বিবি স্বামী মৃত আক্রাম উল্লাহ। ল্যাঃ কপোঃ-৩২,০২৭.৫০
০৮। সার বানু স্বামী মৃত সৈয়দ এমাদ আলী। পিএমআর- ৩২,০২৭.৫০
০৯। আব্দুল গনি। কর্পোরাল-১৬,০১৩.৭৫।

রাত পোহালেই বড়লেখা উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন