বহুল প্রতীক্ষিত যুক্তরাষ্ট্রস্থ বিয়ানীবাজার সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচনের মনোনয়নপত্র দাখিলের দিন ছিল গত রোববার ১২ সেপ্টেম্বর। বিকেল ৫ টা থেকে রাত ৮:৩০ পর্যন্ত ওজন পার্কের ডাইরেক্ট হেলথ সোর্স হোম কেয়ার সার্ভিসে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন প্রার্থীরা। ১৯ পদের জন্য ৩৮ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র গ্রহণের পর তাৎক্ষণিক যাচাই- বাছাই শেষে সবকয়টি মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুর রাজ্জাক।

এ সময় কমিশনের সদস্য হিফজুর এম রহমান, জালাল উদ্দিন আহমেদ, কামাল চৌধুরী ও মোঃ হেলাল উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার সুন্দর ও সুশৃঙ্খল ভাবে মনোনয়নপত্র জমা এবং এখন পর্যন্ত সব কাজ সম্পন্ন করার জন্য দুই প্যানেলের প্রার্থী ও সমর্থকদের ধন্যবাদ জানান এবং আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন এরকম সুন্দর ও সুশৃঙ্খল পরিবেশে বহুল প্রত্যাশিত নির্বাচনটি সুসম্পন্ন হবে সকলের সহযোগিতায়।

নমিনেশন দাখিল পর্যবেক্ষণ করতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, কার্যকরী কমিটির অন্যান্য সদস্য ও উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য বৃন্দ সহ সমিতির সাবেক ও বর্তমান কর্মকর্তা ছাড়াও বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বিয়ানীবাজারবাসী।

মনোনয়নপত্র দাখিলকে কেন্দ্র করে সাজ সাজ রব ছিল নিউইয়র্কের বিয়ানীবাজার পাড়া খ্যাত ওজন পার্ক।

বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে প্রতিদ্বন্দী দুই প্যানেলের প্রার্থী, সমর্থক আর শুভানুধ্যায়ীরা পৃথক পৃথক মিছিল নিয়ে আসেন তাদের পরিষদের পক্ষে মনোনয়নপত্র দাখিল করতে।

এসময় দুই প্যানেলের স্লোগানে স্লোগানে মুখর হয়ে যায় ওজন পার্কের রাজপথ। ওজন পার্ক এলাকা পরিণত হয় একখণ্ড বিয়ানীবাজারে।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজাহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে মান্নান – মাহবুব পরিষদের সমর্থক ও প্রার্থীরা মিছিল নিয়ে নির্বাচন কমিশনের অস্থায়ী কার্যালয়ে আসেন এবং প্রথমেই তারা তাদের নমিনেশন নির্বাচন কমিশনের হাতে জমা দেন।

মান্নান – মাহবুব পরিষদের প্রার্থীরা হলেন সভাপতি পদে মো. আব্দুল মান্নান, সাধারণ সম্পাদক পদে নাজমুল হক মাহবুব, সহ সভাপতি পদে ফয়জুর মিয়া, সহ সাধারণ সম্পাদক পদে আব্দুন নুর হারুন, কোষাধ্যক্ষ পদে আব্দুল হান্নান দুখু, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে আবু তৈয়ব মো. তালহা, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে অনিক রাজ, দপ্তর সম্পাদক পদে আব্দুল হামিদ, প্রচার সম্পাদক পদে আব্দুল হাকিম, ক্রীড়া সম্পাদক পদে কিবরিয়া আহমেদ শাহিদ,সমাজকল্যাণ সম্পাদক পদে আক্তারুজ্জামান শাহীন মালিক, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা পদে নাজমা আহমেদ এবং কার্যকরী সদস্য পদে মো. খলকুর রহমান, জামাল হোসেন, মো. রাজ্জাক মুন্না, নুর উদ্দিন, ফখরুল হক, হোসেন আহমদ ও মো. আবু তাহের।

নমিনেশন জমা দেয়ার পর মান্নান – মাহবুব পরিষদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী এবং নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব সুষ্ঠ, সুন্দর ও নিরপেক্ষ নির্বাচন দিতেন আবারও নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানান এবং কমিশনকে সব ধরনের সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন।

মোস্তফা কামালের নেতৃত্বে মিসবাহ – অপু পরিষদের প্রার্থীরা তাদের সমর্থকবৃন্দ নিয়ে মিছিল আকারে নির্বাচন কমিশনের কার্যালয়ে এসে উপস্থিত হন এবং কমিশনের কাছে তাদের মনোনয়নপত্র জমা দেন।

মিসবাহ – অপু পরিষদের প্রার্থীরা হলেন সভাপতি পদে মিসবাহ আহমদ, সাধারণ সম্পাদক পদে রেজাউল আলম অপু, সহ সভাপতি পদে আবুল ফজল লিটন, সহ সাধারণ সম্পাদক পদে হোসেন আহমদ, কোষাধ্যক্ষ পদে পারভেজ ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মাহমুদুল কবির রুবেল, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে মো. আব্দুল আলীম, দপ্তর সম্পাদক পদে শামসুল আলম শিপলু, প্রচার সম্পাদক পদে মো. আজহার হুসেন রিফাত, ক্রীড়া সম্পাদক পদে হাসান খান, সমাজকল্যাণ সম্পাদক পদে মো. কমর উদ্দিন, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা পদে হাফছা ফেরদৌস হোসেন এবং কার্যকরী সদস্য পদে সাজু আহমদ, সুহেল আহমদ, আবু রাসেল, ফয়ছল আলম, মো. সরোয়ার আহমদ মো. মেহেদী হাসান শিমুল ও ইকবাল হোসেন।

মিসবাহ – অপু পরিষদ তাদের নমিনেশন জমা দেয়ার পর সুষ্ঠু ও সুন্দর আয়োজন এর জন্য নির্বাচন কমিশনকে ধন্যবাদ জানান।

এ সময় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী এবং নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক ও সদস্য সচিব সুষ্ঠু নিরপেক্ষ উপহার দিতে কমিশনকে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর রোববার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে যদি কোনো প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার না করেন তাহলে আগামী ১০ অক্টোবরের নির্বাচনে দুটি প্যানেলে ১৯ জন করে ৩৮ জন প্রার্থী একে-অন্যের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

বিয়ানীবাজার সমিতির ইতিহাসে এবারই প্রথম সর্বোচ্চ পাঁচ হাজারেরও বেশি ভোটার নিয়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত বাংলাদেশীদের অন্যতম বৃহৎ ও প্রাচীনতম আঞ্চলিক সংগঠন বাংলাদেশ বিয়ানীবাজার সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সমিতির এই নির্বাচন।

এবিটিভির বিশেষ প্রতিবেদন

বিয়ানীবাজার সমিতির নির্বাচন ১৯ পদে লড়ছেন ৩৮ জন প্রার্থী