তিন সপ্তাহ পর একদিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত সাত হাজারের নিচে নেমেছে। কমেছে পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্ত হারও। গত ২৪ জুলাই ছয় হাজার ৭৮০ জন রোগী শনাক্ত হয়েছিলেন। আর ২০ দিন পর শনিবার শনাক্ত হলেন ছয় হাজার ৮৮৫ জন।

এর মাঝখানে দৈনিক শনাক্ত রোগী আট হাজারের নিচে আর নামেনি। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে দেশজুড়ে কঠোর বিধিনিষেধের প্রভাবে শনাক্ত ও মৃত্যু কমছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যুও কমেছে। ২০ দিন ধরে মৃত্যু ২০০ এর উপরে ছিল। শুক্রবার প্রথম নিচে নেমে ১৯৭ জনের মৃত্যু হয়। এরপর শনিবার আরও কমে মৃত্যু এসে দাঁড়িয়েছে ১৭৮ জনে।

এদিকে টানা পাঁচদিন দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১০ হাজারের উপরে ছিল। শুক্রবার তা নেমে আট হাজার ৪৬৫ জনে এসে দাঁড়ায়। শনিবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা যায়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর শুক্রবার সকাল পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় ৩৩ হাজার নমুনা পরীক্ষা করে ছয় হাজার ৮৮৫ জনের মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ার কথা জানায়। এ হিসেবে শনাক্ত হার ২০ দশমিক ৬৬ শতাংশ। এর আগের দিন শনাক্ত হার ছিল ২০ দশমিক ৮৩ শতাংশ।

নতুন রোগীদের নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর মোট সংখ্যা দাঁড়াল ১৪ লাখ ১২ হাজার ২১৮ জনে। আর নতুন মৃত্যু নিয়ে মোট মৃত্যু দাঁড়াল ২৩ হাজার ৯৮৮ জনে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, গত একদিনে করোনা আক্রান্ত থেকে সেরে উঠেছেন সাত হাজার ৮০৫ জন। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত ১২ লাখ ৮১ হাজার ৩২৭ জন সুস্থ হয়েছেন।

এবিটিভির বিশেষ প্রতিবেদন

বিয়ানীবাজারে করোনার ভয়াল থাবা, একদিনে পজিটিভ ও উপসর্গ নিয়ে ৪ জনের মৃত্যু