তৃতীয়বারের মতো মৌলভীবাজার জেলার সেরা করদাতা হয়েছেন বড়লেখা উপজেলার ব্যবসায়ী ও প্রথম শ্রেণির ঠিকাদার জালাল আহমদ। গত বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) দুপুরে সিলেট এয়ারপোর্ট এলাকার একটি অভিজাত হোটেলে কর অঞ্চল সিলেট আয়োজিত সেরা করদাতা সম্মাননা পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে তাকে সেরা করদাতার পুরস্কার ও সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে করদাতা সম্মাননা পুরস্কার প্রদান করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

কর অঞ্চল সিলেটের কর কমিশনার আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট রেঞ্জের উপ মহা পরিদর্শক (ডিআইজি) মফিজ উদ্দিন আহম্মেদ, কাস্টমস ও ভ্যাট কমিশনারেট সিলেটের কমিশনার মোহাম্মদ আকবর হোসেন, কর আইনজীবী সমিতির সভাপতি এম. রফিকুর রহমান, সিলেট চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি তাহমিন আহমদ, সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বারের সহ সভাপতি আব্দুল জব্বার জলিল প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সিলেট সিটি করপোরেশন ও চার জেলায় ১০ জনকে দীর্ঘমেয়াদী সর্বোচ্চ করদাতা সম্মাননা পুরস্কার দেওয়া হয়। এছাড়া সর্বোচ্চ করদাতা ১৫ জন ছাড়াও নারী ও তরুণ পুরুষ শ্রেণিতে ৫ জন করে ১০ জনসহ মোট ৩৫ জনকে করদাতা পুরস্কার দেওয়া হয়।

করদাতা সম্মাননা পাওয়া জালাল আহমদ বলেন, ‘জাতীয় রাজস্ব বোর্ড আমাকে তৃতীয়বারের মতো সেরা করদাতা হিসেবে সম্মানিত করায় ভালো লাগছে। এটা আমাকে আরও প্রেরণা যোগাবে। এ ধরণের আয়োজন নতুন করদাতাদের ব্যাপকভাবে উৎসাহিত করবে। সেই সাথে সরকারের রাজস্ব বাড়বে। পাশাপাশি এই রাজস্ব জননেত্রী শেখ হাসিনার নেওয়া উন্নয়ন প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে সহায়ক ভূমিকা রাখবে এবং দেশ ও জনগণের কল্যাণে আসবে।’

প্রসঙ্গত, জালাল আহমদ মৌলভীবাজার জেলায় সর্বোচ্চ সেরা করদাতা ২০২২ মনোনীত হয়েছেন। এর আগে ২০১৯-২০২০ কর বছরে জেলার সর্বোচ্চ তরুণ (৪০ বছর বয়সের নিচে) এবং ২০২০-২০২১ কর বছরে সর্বোচ্চ আয়কর প্রদাকারী হয়েছিলেন। তিনি বড়লেখা উপজেলার সদর ইউনিয়নের গ্রামতলা গ্রামের মিছবাহুল ইসলামের ছেলে।

‌ পরিত্যক্ত পলিথিন দিয়ে জ্বালানি তেল তৈরী করছেন বিয়ানীবাজারের তিন যুবক, চলছে মোটরসাইকেল!