লিবিয়া হয়ে ইতালি যাওয়ার পথে তিউনিশিয়ার সমুদ্র উপকুলে নৌকা ডুবে নিহত বিয়ানীবাজারের আব্দুল হালিম সুজনের মরদেহ দেশে এসে পৌছেছে। আজ শনিবার ভোরে ঢাকার হযরত শাহজালা (রহঃ) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌছালে নিহত সুজনের স্বজন তার মরদেহ গ্রহণ করেন। তাঁর মরদেহ আজ শনিবার বিকাল ৫টার দিকে বিয়ানীবাজারের বাড়িতে এসে পৌছাবে। পরে সন্ধ্যা ৬টায় উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের মাইজকাপন পূর্ব মাঠে তার জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।

জানা যায়, বিয়ানীবাজার উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের মাইজকাপন গ্রামের মৃত মাহমদ আলীর পুত্র আব্দুল হালিম সুজন (৩২) কয়েকমাস পূর্বে দালালদের মাধ্যমে লিবিয়া যান। ইউরোপের দেশ ইতালিতে যেতে লিবিয়া থেকে নৌকাযুগে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেয়ার সময় তিউনিশিয়ার উপকুলে নৌকা ডুবে গেলে সুজনসহ অনেক বাংলাদেশী মারা যান। আজ শনিবার তার লাশ বাংলাদেশ সরকারের মাধ্যমে দেশে এসেছে। বিয়ানীবাজারের সুজনের গ্রামের বাড়িতে এসে পৌছাবে আজ শনিবার বিকাল ৫টার দিকে।

নিহত সুজন সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। মা-বাবাহীন পরিবারের চার ভাই ও এক বোনের সংসারের অভিভাবক সুজন পরিবারে স্বচ্ছলতা ফেরাতে ইউরোপে যাওয়ার স্বপ্নে বিভোর ছিল। কিন্ত তাঁর সে স্বপ্ন পুরণ হয়নি। দালালদের মাধ্যমে লিবিয়া হয়ে ইতালি যাওয়ার পথে ভূমধ্যসাগরে নৌকা ডুবলে তিনি মারা যান। তাঁর মৃত্যুর সংবাদ বাড়িতে পৌছালে পরিবারে নেমে আসে ঘোর অন্ধকার। ভাই-বোন সুজনের এমন মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না।