বিয়ানীবাজারে ট্রাফিক পুলিশের অভিযানের শেষ দুই দিনে ১৩৬টি মামলা হয়েছে বিভিন্ন যানবাহনের বিরুদ্ধে। গত শুক্র ও শনিবার এই দুই দিনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পরিচালিত অভিযানে ট্রাফিক আইন অমান্য করায় এসব মামলা করা হয়েছে। প্রথম দিনে ট্রাফিক পুলিশ ৩৯টি বিভিন্ন ধরনের যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। দ্বিতীয় দিন শনিবারে যান বাহনের কাগজসহ বিভিন্ন ধরনে ট্রাফিক অনুমোদন না থাকায় ৯৭টি মামলা করেন সংশ্লিষ্টরা।

পুলিশ জানায়, গত দুই দিন ধরে উপজেলার তিনটি পয়েন্টে ট্রাফিক পুলিশ সড়কে চলাচলকারি যানবাহনের গাড়ির কাগজপত্র সনাক্ত করে। এ সময় মোটর সাইকেল, অটোরিকশা, প্রাইভেট কার ও ভ্যানগাড়িসহ ১৩৬টি গাড়ি কাগজ না থাকায় মামলা দায়ের করে পুলিশ।

আটক ও মামলা দায়েরকৃত গাড়ির মধ্যে প্রথম দিনে মোটর সাইকেলের সংখ্যা বেশি ছিল। তবে শনিবার সড়কে চলাচলকারি পিকআপ ভ্যান ও অটোরিকশাসহ অন্যান্য গাড়ির বিরুদ্ধেও ট্রাফিক পুলিশ অভিযান পরিচালনা করেছে।

জানা যায়, উপজেলার চারখাই, সুপাতলা ও বিয়ানীবাজার চন্দরপুর সড়কের নবাং-সুতারকান্দি সেতুসহ সহ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ট্রাফিক পুলিশ গাড়ির কাগজপত্র তল্লাশি করে। অভিযান চলাকালে যেসব গাড়ির কাগজ নেই তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে পুলিশ।

বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজালাল মুন্সী বলেন, মোটরযানের ১৫১/১৫২সহ বিভিন্ন ধারায় গত দুইদিনে বিশেষ অভিযানে বিভিন্ন যানবাহন ও চালকদের বিরুদ্ধে ১৩৬ টি মামলা দেয়া হয়েছে । প্রায় সবধরনের গাড়ির বিরুদ্ধেই মামলা হয়েছে। তবে সেসব গাড়ির কাগজ না থাকা, কাগজে অনিয়মসহ বিভিন্ন কারণে তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।