মৌলভীবাজার জেলার জুড়ীতে সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালকদের দুই পক্ষের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের ১২ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। আহতরা স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। শনিবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার জাঙ্গিরাই এলাকর ত্রিমোহনীতে ঘটেছে।

হামলায় আহত মৌলভীবাজার জেলা অটো টেম্পু, সিএনজি, মিশুক সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের (২৩৫৯) অন্তর্গত জুড়ী উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মাসুক মিয়া অভিযোগ করে বলেন, ‘বিজিবি ক্যাম্প চত্ত্বরের একটি সিএনজি বড়লেখা যাবার পথে ঘটনাস্থলে অবস্থিত একটি সিএনজি স্ট্যান্ড থেকে দুইজন যাত্রী উঠালে ওখানকার শ্রমিকরা সিএনজি চালক এনামকে মারপিঠ করে। আমি ছুটে গিয়ে মীমাংসার চেষ্টা করি। এসময় ওই শ্রমিকরা আমিসহ কয়েকজন শ্রমিকের উপর হামলা করে। এতে আমি, এনাম, জুবের, রুবেলসহ চারজন শ্রমিক আহত হয়েছি।’ আহতরা বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে তিনি জানান।

অপরপক্ষে স্থানীয় শিশুপার্ক স্ট্যান্ড কমিটির সভাপতি বদরুল ইসলাম ও সাবেক সভাপতি আব্দুুস সহিদ পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, ‘সম্প্রতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দেওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা সিএনজি পরিচালনা করছি। কিন্তু সংগঠনের উপজেলা সভাপতি মতিউর রহমান চুনুর ভাই ও রাসেল পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী দলবদ্ধভাবে অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আমাদের শ্রমিকদের উপর হামলা চালায়। এতে মনির মিয়া, নিতাই দাশ, সাইফুর, মির্জান, মনির, আনোয়ার, জালাল, শাহীন ও সেলিমসহ প্রায় ১০জন শ্রমিক আহত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসা নিচ্ছে।

এ বিষয়ে জুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সঞ্জয় চক্রবর্তী বলেন, ‘ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।’

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-