শিল্পপতি, সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালক ও একাত্তরের কথা পত্রিকার প্রকাশক নজরুল ইসলাম বাবুল জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়েছেন। বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) রাতে নগরীর নাইওরপুলস্থ একটি অভিজাত হোটেলের কনফারেন্সরুমে যোগদান অনুষ্ঠানে সমাজসেবক নজরুল ইসলাম বাবুলকে জাতীয় পার্টিতে বরণ করে নেন পার্টির কেন্দ্রীয়, জেলা ও মহানগরের নেতৃবৃন্দ।

যোগদান অনুষ্ঠানে বক্তব্যে নজরুল ইসলাম বাবুল বলেন, ‘আমি বিগতদিনে কোন দলে ছিলাম, সেটি মূখ্য নয়। বরং মূখ্য হচ্ছে সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে আমি আজ থেকে জাতীয় পার্টিতে যোগদান করলাম। আজ থেকে জাতীয় পার্টির মাধ্যমে পল্লীবন্ধু এরশাদের দেখানো পথে মাটি ও মানুষের সেবার করার চেষ্টা চালিয়ে যাবো। এরশাদ জীবিত থাকাকালীন সময়ে সিলেটকে দ্বিতীয় বাড়ি মনে করতেন। তার ভালোবাসার জায়গা সিলেট। পল্লীবন্ধুর প্রিয় এই অঞ্চলে জাতীয় পার্টি অনেক সুসংগঠিত, অনেক শক্তিশালী। আরোও সুসংগঠিত-শক্তিশালী করে তুলতে সবাইকে নিয়ে কাজ করতে চাই। আমি মনে করি সবাই আমার সাথে থেকে, কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করবেন; সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিবেন। ইনশাআল্লাহ জাতীয় পার্টির অবস্থান আরোও সুদৃঢ় হবে।’

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট গিয়াস উদ্দিনের সভাপতিত্বে রাজনীতিবিদ নজরুল ইসলাম বাবুলকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা আব্দুল্লাহ সিদ্দিকী, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন খালেদ এবং কেন্দ্রীয়, জেলা ও মহানগর নেতৃবৃন্দ।

সিলেট জাতীয় পার্টির নেতার আব্দুস শহীদ লশকর বশীরের পরিচালনায় কেন্দ্রীয়, জেলা ও মহানগরের নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সদস্য মো. বশির উদ্দিন, কাজী আশরাফ উদ্দিন, আব্দুস সামাদ নজরুল, ইশরাকুল হোসেন শামীম, মো. আহসান হাবিব মঈন, আব্দুল মালিক খান, অ্যাডভোকেট মো. আব্দুর রহমান চৌধুরী, ইসমাঈল আলী আশিক, মো. আব্দুল মজিদ টিয়া, অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান, মো. আবুল হাছনাত, অ্যাডভোকেট গিয়াস উদ্দীন চৌধুরী, বাশির আহমদ, মামুনুর রশিদ মামুন, লুৎফুর রহমান খাঁন, আব্দুর রহমান বারাকাত, শেখ আসাদুজ্জামান জোবায়ের, এম বরকত আলী, মো. আল আমিন, অ্যাডভোকেট মনজুরুল হক তালুকদার, মাহমুদুর রহমান, আবুল কালাম তাপাদার, মাহমুদুল আম্বিয়া হোসাইন, আজিজুর রহমান সবুজ, মোহাম্মদ জুবের আহমদ প্রমুখ।

এছাড়াও যোগদান অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্নস্তরের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। নজরুল ইসলাম বাবুলের মতো পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি নিজেদের সংগঠনে যোগদান করায় তারা অত্যন্ত উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন। তারা মনে করছেন, এরকম গুণী ব্যক্তিরা যদি দেশের অন্যতম প্রধান এই রাজনৈতিক দলের সাথে সম্পৃক্ত হন তবে মাটি ও মানুষের দাবি-দাওয়া আদায়ে আরোও গতির সঞ্চার হবে। এমন ব্যক্তিদের মাধ্যমে সমাজের অন্য গুণীজনেরা জাতীয় পার্টির রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হতে উৎসাহ পাবেন বলে মনে করছেন সিলেট জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা।

অন্যদিকে যোগদান অনুষ্ঠান শেষে একই স্থানে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভাতেও সভাপতিত্ব করেন চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট গিয়াস উদ্দিন। আলোচনায় জাতীয় পার্টির নেতারা গভীর শ্রদ্ধাভরে মহান মুক্তিযুদ্ধে প্রাণ বিসর্জন করা মুক্তিযোদ্ধা ও লাখো শহীদ, সম্ভ্রম হারানো মা- বোনদের আত্মত্যাগের কথা তুলে ধরেন। তাদের আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া ও মোনাজাতও অনুষ্ঠিত হয়।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-