সিলেটের জকিগঞ্জ থেকে ডাকাত দলের ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার (১৮জুন) পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে বিয়ানীবাজার-জকিগঞ্জ-কানাইঘাট সীমান্ত এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। শনিবার (১৯ জুন) সিলেট জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন জানান।

পুলিশ জানায়, জকিগঞ্জ থানাধীন সুলতানপুর ইউনিয়নের অর্ন্তগত ছয়ঘরী গ্রামের মনােয়ারা বেগমের বাড়িতে গত ৪ জুন দিবাগত রাত দেড়টার দিকে সময় ৮/৯ সদস্যের ডাকাত দল বাড়িতে হানা দিয়ে নগদ অর্থ, স্বর্ণালঙ্কার ও মােবাইলসহ প্রায় ৮ লাখ ৫৬ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় গত ৫ জুন অভিযোগকারী মনােয়ারা বেগম কর্তৃক জকিগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযােগ দায়েরের প্রেক্ষিতে জকিগঞ্জ থানার মামলা নং-২ তারিখ-০৫-০৬-২০২১ খ্রিঃ ধারা-৩৯৫/৩৯৭ পেনাল কোড রুজু করা হয়।

ঘটনাটি সিলেট জেলার পুলিশ সুপার মােহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম এর নজরে আসলে তিনি ঘটনায় জড়িত ডাকাতদের গ্রেফতারের জন্য জকিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মাে.আবুল কাসেমকে নির্দেশনা প্রদান করেন।

এরই প্রেক্ষিতে অফিসার ইনচার্জ ডাকাত গ্রেফতারে সাড়াশি অভিযান পরিচালনার লক্ষ্যে একাধিক টিম গঠন করেন। বিয়ানীবাজার-জকিগঞ্জ-কানাইঘাট সীমান্তে ডাকাত দলের সদস্যরা আত্মগােপন করে। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ডাকাতদলের সদস্যদের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে জকিগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকির হােসাইনের নেতৃত্বে গত শুক্রবার জকিগঞ্জ থানার বিভিন্ন সীমান্তবর্তী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৪জনকে আটক করা হয়।

গ্রেফতারকৃত চালিয়ে জকিগঞ্জের বারঠাকুরী উত্তরভাগের আ: রহিমের ছেলে হাছন আহমদ ওরফে হাছন (২৯), বালাউটের শিব্বির আহমদের ছেলে জুনেদ আহমদ (২২), কাশিরচকের জামাল আহমদের ছেলে রমজান আলী ওরফে রমজান (২৫), প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেয়া তথ্যমতে ডাকাতির ঘটনায় লুণ্ঠিত মালামাল ক্রয়কারি মােগলাবাজার থানার কিষনপুর গােটাটিকরের মৃত নিপেন্দ্র কর্মকারের ছেলে দিলীপ কর্মকার (৫০)।

পবরর্তীতে ডাকাতদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের তাদের হেফাজতে থাকা মােবাইল ফোনসহ অন্যান্য মালামাল উদ্ধার করা হয়।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

মসজিদের শহর বিয়ানীবাজার। পর্ব#১৩। ৪’শত বছরের পুরনো উপজেলার দৃষ্টিনন্দন নিদনপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ