সিলেটের সত্তর দশকের চিত্রশিল্পী হাবিবুর রহমান হাবিব আর নেই (ইন্না লিল্লাহি…রাজিউন)। কয়েক বছর থেকে তিনি শ্বাসকষ্ট জনিত রোগে ভুগলেও স্বাভাবিক অবস্থায় রবিবার ভোরে তিনি নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুর সময় তার স্ত্রী, ৯ ছেলে এবং ৬ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও শুভাকাঙ্খি রেখে গেছেন। মরহুমের জানাজার নামাজ বারইগ্রাম কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে রবিবার বাদ যোহর অনুষ্ঠিত হবে এবং পরে স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হবে।

চিত্রশিল্পী হাবিবুর রহমান হাবিবের ছেলে আলী দেলোওয়ার জানান, হঠাৎ করে শ্বাসকষ্টে  তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন। তিনি একসাথে পরিবারের সাথে রাতের খাবারও খেয়েছেন। মরহুমের ছেলে চিত্রশিল্পী আলী দেলোওয়ার তার বাবার মৃত্যুতে সকলের দোয়া চেয়েছেন।

গুনী এই চিত্র শিল্পীর বাড়ি সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার মুল্লাপুর ইউনিয়নের আব্দুল্লাপুর-বারইগ্রামে। তিনি সকলের কাছে ‘হাবিব আর্ট’ নামে পরিচিত ছিলেন। স্বাধীনতা পরবর্তী সময় থেকে সিলেট বিভাগে সর্বত্র হাবিব আর্টের সৃজনশীল কর্ম ছড়িয়ে ছিল। সিলেটের প্রায় সবগুলো সরকারী ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে তার আঁকা চিত্রকর্ম অথবা ওয়াল পেইন্টিং ছিল খুব সমাদৃত। আশির দশকে চিত্রকর্ম ও ব্যানার পোষ্টার তৈরীতে একমাত্র ভরসা ছিল রঙ- তুলির ব্যবহার। সে সময়ে বৃহত্তর সিলেটের সিংহভাগ ষ্টুডিও এবং গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় হাবিব আর্টের দৃষ্টিনন্দন চিত্রকর্ম প্রকাশ পেয়েছে সবচেয়ে বেশী। তার সৃজনশীল কাজের অন্যতম বিষয় ছিল- গ্রামবাংলা, প্রকৃতি ও ম্যুরাল ।

হাবিব আর্টের চিত্র কর্মের ক্রেতা ছিলেন প্রবাসী অধ্যুষ্যিত সিলেটের যুক্তরাজ্য , যুক্তরাষ্ট্র ,মধ্যপ্রাচ্যে প্রবাসীরা। তিনি স্বাধীনতা পরবর্তি সময় সৌদি ও সিঙ্গাপুর প্রবাসী ছিলেন এবং সেখানেও প্রচুর চিত্রকর্ম একেছেন।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-