গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। শনিবার (৫ জুন) দুপুরে সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় এ কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড.নাসির উদ্দিন খান কমিটি অনুমোদনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ যে প্রস্তাবিত কমিটি দিয়েছিল তা একতরফা হয়ে গিয়েছিল। জেলা আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের পরামর্শক্রমে এটি অনেক রদবদল করা হয়েছে। সুন্দর একটা কমিটি উপজেলা আওয়ামীলীগকে উপহার দেওয়া হয়েছে।

পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যারা স্থান পেলেন তারা হলেন, সভাপতি এডভোটেক ইকবাল আহমদ চৌধুরী, সহ সভাপতি লুৎফুর রহমান, মুবিন আহমদ জায়গীদার, রফিক আহমদ মাখন, মস্তাক আহমদ (চেয়ারম্যান), রুকন উদ্দিন, জিল্লুর রহমান,আবুল ফজল চৌধুরী সাহেদ, মাহমুদ চৌধুরী, জহির উদ্দিন। সাধারণ সম্পাদক রফিক উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান চৌধুরী রিংকু, দেলওয়ার হোসেন চুনু, আলী আকবর ফখর।

আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট নিমার আলী, কৃষি ও সমবায় সম্পাদক বোরহান উদ্দিন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ফরহাদ আহমদ, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক শাহাব উদ্দিন, দপ্তর সম্পাদক নাজিমুল হক লষ্কর। ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আবুল লেইছ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আলীম উদ্দিন বাবলু, বন ও পরিবেশ সম্পাদক এড আব্দুল আহাদ বাবলু, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এম এ মুহিত হিরা (চেয়ারম্যান), মহিলা বিষয়ক সম্পাদক আঙ্গুরা বেগম, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক তোতা মিয়া কামান্ডার, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক আব্দুল হানিফ খান, শিক্ষা ও মানব সম্পাদক কাজল কান্তি দাস, শ্রম সম্পাদক আব্দুল মনান্ন কয়েস, সাংস্কৃতিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান আজম, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক রুমেল সিরাজ, সাংগঠনিক সম্পাদক খুরশেদ আলম চৌধুরী রিপন, সৈয়দ হাছিন আহমেদ মিন্টু, খায়রুল হক। সহ-দপ্তর সম্পাদক হোসেন আহমদ, সহ প্রচার সম্পাদক মনসুর হক চৌধুরী, কোষাধ্যক্ষ শরফ উদ্দিন (বাঘা)।

সদস্য ময়নুল হক (ভাদেশ্বর),আতাউর রহমান,(বাদেপাশা), কামাল পারভেজ (ঢাকা দক্ষিণ) মখলিছুর রহমান (ফুলবাড়ি), অজিউর রহমান ছানা, এনামুল হক রুহেল, আর্জমন্দ আলী, মাহতাব উদ্দিন জেবুল, নুরুল ইসলাম (বাঘা), তমিজ উদ্দিন (ভাদেশ্বর,) সেলিম উদ্দিন (ভাদেশ্বর) আব্দুস সামাদ (বাঘা)মহসিন মজনু ভাদেশ্বর, হেলাল আহমদ, (গোলাপগঞ্জ ফাজিলপুর), ফয়ছল আহমদ চৌধুরী, ঢাকা দক্ষিণ), আব্দুল মালিক ছানু, (ভাদেশ্বর), খায়রুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, (পৌরসভা), এমজেড আলম, (বুধবারীবাজার), আব্দুল হান্নান (ভাদেশ্বর), জাফরান জামিল, (বাঘা) জয়নাল আবেদিন, (ভাদেশ্বর হাওরতালা), আবুল কাশেশ সেবুল,(গোলাপগঞ্জ), আব্দুস সামাদ (ঢাকাদক্ষিন), ফরিদ উদ্দিন ইরান (পৌর সভা) এমএ ওয়াদুদ এমরুল (আমুড়া), সেলিম উদ্দিন (বুধবারীবাজার), কামাল উদ্দিন (আমুড়া), সৈয়দ এহতেশামুল হক (ভাদেশ্বর), রুহেল আহমদ রিপন (বুধবারীবাজার), ইসমাইল হোসেন সিরাজি (শরিফগঞ্জ), আজমল হোসেন (ফুলবাড়ি), অরুন কুমার দে, ক্বারী তোফায়েল আহমদ জিলু (লক্ষনাবন্দ), শফি আহমদ চৌধুরী, (লক্ষীপাশা) তারেক আহমদ (চক লক্ষনাবন্দ)।

উপদেষ্ঠা পরিষদে যারা আছেন তারা হলেন, উপদেষ্ঠা ডা: আব্দুর রহমান, আবুল বশর ছদরউল্লা চৌধুরী, ছলমান আহমদ চৌধুরী, তমজ্জুল আলী (তোতামিয়া) জগলুল আহমদ চৌধুরী, আব্দুল্লাহ আল মামুন, আশরাফুজ্জামান আশু, ইমাম উদ্দিন, খন্দকার আসুক আহমদ, আব্দুল মান্নান, আব্দুর রাজ্জাক কলামিয়া, আব্দুল মুকিত, হরিপদ দেব, কনর মিয়া, বেলাল আহমদ, ইসমাইল আলী, এড. সুরুজ আলী, মতিউর রহমান, নজরুল ইসলাম পংকি, আসমান আলী, শরফ উদ্দিন।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ ১৪ বছর পর ২০১৯ সালের ১৩ নভেম্বর গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম অধিবেশন সমাপ্ত হওয়ার পর দ্বিতীয় অধিবেশন সম্পন্নের জন্য উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন নির্ধারণ করা হয়। এরই আলোকে উপজেলার ১১ ইউনিয়ন ও পৌরসভার কাউন্সিলরগণ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচনের জন্য ভোটের প্রস্তুতি নেন। সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন উদ্যোগ নেন সমঝোতার ভিত্তিতে কমিটি গঠনের। এ লক্ষ্যে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের প্রার্থীদের নিয়ে বৈঠকে বসেন। তবে সেখানে কোন সমঝোতা হয়নি।

পরে ২০১৯ সালের ১৮ডিসেম্বর সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট লুৎফুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে ৩ বছর মেয়াদি কমিটিতে সাবেক সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরীকে সভাপতি ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমদকে পুনরায় সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মনোনীত করা হয়। দীর্ঘ প্রায় এক বছরের বেশি সময় ধরে অপূর্ণাঙ্গ উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটি আজ জেলা আওয়ামীলীগের অনুমোদনের মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গতা পেলো।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

আনারসের নগরী গোলাপগঞ্জ!