গোলাপগঞ্জের লক্ষণাবন্দে মাটিতে মেঘের কুণ্ডলি নামার ঘটনায় এলাকা জুড়ে আতংকের সৃষ্টি হয়েছে। মেঘের কুণ্ডলিটির স্থায়িত্ব ছিল মাত্র দুই মিনিট। শনিবার (২৬ মে) বিকাল ৪টার দিকে উপজেলার লক্ষণাবন্দ ইউনিয়নের কমলগঞ্জ নোয়াইচক গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এসময় এলাকাজুড়ে আতংকের সৃষ্ট হলে এলাকাবাসী দিক-বেদিক ছুটতে শুরু করে।

দূর থেকে দেখলে মনে হবে মাটি থেকে ধোয়ার কুন্ডলি আকাশের সাথে মিশে গেছে। আকাশের দিকটি সরু এবং মাটির দিকটি অনেক বড়। প্রথমেম বিষয়টি স্থানীয়রা বুঝতে পারেননি। চোখের ভ্রম মনে করলেও পরক্ষণে অজানা আতংক ভর করে। মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়ে পুরো গ্রামে। উৎসুক মানুষ মোবাইল ক্যামেরায় দৃশ্যটি ধারণ করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার বিকেলে লক্ষণাবন্দ গ্রামের নোয়াইচক গ্রামের দক্ষিণ পাশের কৃষি জমিতে আকস্মিক আকাশ থেকে ধোয়ার মত একটি বিশালাকৃতির মেঘের কুণ্ডলি দেখা যায়। যা গোলাপগঞ্জের ইতিহাসে এই প্রথম ঘটে। এই দৃশ্য দেখে এলাকার সবাই আতংকিত হয়ে পড়েন। প্রথমে কুণ্ডলিকে গ্যাস বলে ধারণা করলেও পরে কাছ থেকে দেখেন এটি মেঘের কুণ্ডলি।স্থানীয়রা জানান, মেঘের কুণ্ডলিটি ছিল বাঁকা চাঁদের মত। মাটিতে পড়ার সাথে সাথে কয়েক মিনিটের ভিতরে তা মিলিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নছিরুল হক শাহিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। আশ্চর্যজনক ঘটনা এটি।