গোলাপগঞ্জের ব্যবসায়ী এহতেশামুল হক শাহিন হত্যার ঘটনায় ৪ আসমীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। শনিবার (১ মে) রাতে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব গোলাপগঞ্জ থানাধীন হাজীপুর শুকনা গ্রামের অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করে। রবিবার (২ মে) দুপুরে গ্রেফতারকৃতদের হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে, কায়স্থগ্রামের কুসুমবাগের জামাল হোসেনের ছেলে সরোয়ার হোসেন (২৪) ও হাজিপুর শুকনাগ্রামের মৃত তৈয়বুর রহমানের ছেলে মাজেদুর রহমান (৩৭) একই গ্রামের মানিক মিয়ার ছেলে শাকিল আহমদ (২৬), মাহবুবুর রহমানের ছেলে ওয়াহিদুর রহমান ওরফে সানি (২৭)।

জানা যায়, নিহত শাহিন গোলাপগঞ্জের ফুলবাড়ি ইউনিয়নের হাজীপুর লরিফর গ্রামের বসিন্দা। এছাড়াও তিনি হেতিমগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির সাবেক সহ-সভাপতি ছিলেন। রবিবার দিবাগত (২২ মার্চ) রাত ১টার দিকে উপজেলার ফুলবাড়ি ইউনিয়নের লরিপুর গ্রামের সড়কে লরিপুর গ্রামের মরহুম আব্দুল হকের ছেলে যুবলীগ নেতা এহতেশামুল হক শাহিনকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে খুন করা হয়।

নিহত শাহিন ওই রাতে ঢাকা থেকে জরুরী কাজ শেষ করে সিলেট থেকে সিএনজি যোগে বাড়ি ফিরছিলেন। গ্রামে আসামাত্র কয়েজন সন্ত্রাসী কলাগাছ ফেলে রাস্তার গতি রোধ করে। এসময় শাহিনের সাথে সন্ত্রাসীদের ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা শাহিনকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে চালক ও পরিবারের সহযোগিতায় তাকে দ্রুত ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন সিলেট র‌্যাব-৯ এর এএসপি ওবাইন। তিনি জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব অভিযান চালিয়ে গোলাপগঞ্জের ব্যবসায়ী শাহিন আহমদ হত্যা মামলার আসামীকে গ্রেফতার করে।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

জুড়ীতে বোরো ধানের বাম্পার ফলন, উৎপাদন হবে ২১ হাজার ৯২৫ মেট্রিক টন চাল