সিলেটের গোলাপগঞ্জে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে দুই যুবক আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন- উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের দত্তরাইল গ্রামের বকুল মিয়ার ছেলে আব্দুল আহাদ (২০) ও একই গ্রামের শেহনাজ আহমদের ছেলে হিমায়েত আহমদ (২০)।

গুরুতর আহত আব্দুল আহাদকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন পশ্চিম বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

হামলাকারী যুবক আব্দুর রহমান সোহাগ (২০) কে আটক করেছে পুলিশ। সে আমুড়া ইউনিয়নের ধারাবহর গ্রামের মৃত আমান মেম্বারের ছেলে।

জানা যায়, বেশ কিছুদিন থেকে টিকটকে একটি ছবি দেয়া নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ চলছিলো। রোববার দুপুরে উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ এলাকায় আসে সোহাগসহ কয়েকজন। এসময় পূর্ব বিরোধের জের নিয়ে আহাদ, শেহনাজদের সাথে সোহাগ বাকবিতন্ডে লিপ্ত হয়। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়। এসময় সোহাগ তার হাতে থাকা ছুরি দিয়ে আহাদ ও শেহনাজের পিঠে ও বাহুতে স্টেপ করে। এসময় স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করেন। সেখানে কর্তরত চিকিৎসক আহাদকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। শেহনাজকে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

এদিকে ঘটনার সময় স্থানীয়রা সোহাগকে আটকে রাখেন। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে অভিযুক্ত সোহাগকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ঘটনায় নিজাম উদ্দিন বাদি হয়ে গোলাপগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আসামী সোহাগকে আগামীকাল আদালতে প্রেরণ করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন গোলাপগঞ্জ মডেল সেকেন্ড অফিসার এসআই ফয়জুল করিম।

‌সা্প্তাহিক বাজার দর।। পর্ব#১৪৬।। বিয়ানীবাজারে বেড়েছে ডিম-সবজির দাম