গোলাপগঞ্জে এক বৃদ্ধের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার সকালে গোলাপগঞ্জ মডের থানার পুলিশ তার ভাড়া বাসা থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে। তিনি মৌলভীবাজারে জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার মাইজদিহি গ্রামের মৃত জহুর আলীর ছেলে কনাই মিয়া।

জানা যায়, গোলাপগঞ্জ উপজেলার হেতিমগঞ্জ বাজারের একটি দোকানে চা বিক্রি করতেন কনাই মিয়া। দোকানের পাশেই জমির উদ্দিন নামের এক ব্যক্তির মালিকানাধীন একটি মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় বসবাস করতেন। প্রতিদিন সকালে চায়ের দোকান খোললেন। আজ দোকান খোলা না দেখে প্রতিবেশী জনৈক ব্যক্তি তার ঘরে গিয়ে দেখতে পান কনাই মিয়াকে গলায় রশি দিয়ে ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলে রয়েছে। তখন তিনি দ্রুত স্থানীয়দের খবর দেয়। সংবাদ পেয়ে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে লাশ থানায় নিয়ে আসেন। পরে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মীর মোহাম্মদ আবু নাসের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, প্রাথমিক ভাবে আত্মহত্যাই বুঝা যাচ্ছে।তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যু কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।