সৌদি আরবের বিপক্ষে মঙ্গলবারের (২২ নভেম্বর) ম্যাচ দিয়ে কাতার বিশ্বকাপ মিশন শুরু করতে যাচ্ছে আর্জেন্টিনা। ক্যারিয়ারে পঞ্চমবারের মতো বিশ্বকাপে খেলতে নামার আগে বেশ কিছু রেকর্ডের সামনে দাঁড়িয়ে আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসি।

মঙ্গলবার খেলতে নামলেই সর্বোচ্চ পাঁচটি বিশ্বকাপে খেলা ক্লাবের সদস্য হবেন মেসি। একই সুযোগ থাকছে পর্তুগালের ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোরও। ২০০৬, ২০১০, ২০১৪ ও ২০১৮ সর্বশেষ চার বিশ্বকাপে খেলেছেন মেসি ও রোনালদো।

ফুটবল বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি ২৫টি ম্যাচ খেলেছেন জার্মানির ম্যাথিউস। এখন পর্যন্ত মেসি খেলেছেন ১৯টি। আর ৭টি ম্যাচ খেললেই ম্যাথিউসকে টপকে বিশ্ব রেকর্ড গড়বেন মেসি। এজন্য সেমিফাইনালে উঠতে হবে মেসির আর্জেন্টিনাকে। সেমি পর্যন্ত ৬টি ম্যাচ খেলবেন মেসি। গ্রুপ পর্বে ৩টি, শেষ ষোলো, কোয়ার্টার ফাইনাল ও সেমি মিলিয়ে মোট ৬টি। সেমিতে হেরে গেলে তৃতীয়স্থান নির্ধারনীসহ ৭টি ম্যাচ হবে মেসির। অথবা ফাইনালে উঠলেও এই আসরে ৭টি ম্যাচ হয়ে যাবে মেসির। তাতেই বিশ্বরেকর্ডের মালিক হবেন তিনি।

বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার হয়ে সবচেয়ে বেশি ২১টি ম্যাচ খেলেছেন কিংবদন্তি ডিয়াগো ম্যারাডোনা। এখন পর্যন্ত ১৯টি ম্যাচ আছে মেসির। এবারের আসরের গ্রুপ পর্বে ৩টি ম্যাচ খেললে মেসির ম্যাচ সংখ্যা হবে ২২টি। তাতে ম্যারাডোনাকে পেছনে ফেলবেন মেসি।

বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি জয়ের স্বাদ পেয়েছেন জার্মানির সাবেক স্ট্রাইকার মিরোস্লাভ ক্লোসা। চারটি বিশ্বকাপে ১৭টি জয় আছে তার। বিশ্বকাপে মেসির জয় ১২টি। এবারের আসরে গ্রুপ পর্ব থেকে সেমিফাইনাল পর্যন্ত সব ম্যাচ জিতলেই ক্লোসাকে পেছনে ফেলবেন মেসি।

অধিনায়ক হিসেবে বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি ১৭ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছেন মেক্সিকোর সাবেক ডিফেন্ডার রাফায়েল মার্কেজ। এই তালিকার দ্বিতীয়স্থানে আছেন আর্জেন্টিনার কিংবদন্তি দিয়াগো ম্যারাডোনা। ১৬ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। বিশ্বকাপ মঞ্চে এ পর্যন্ত ১২ ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মেসি। এবারের বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা সেমিফাইনালে উঠলেই মার্কেজকে ছাড়িয়ে যাবেন মেসি।

এখন পর্যন্ত চারটি বিশ্বকাপ খেলে এর মধ্যে ২০০৬, ২০১৪ ও ২০১৮ আসরে গোল করেছেন মেসি। ২০১০ সালে গোল করতে পারেননি। এবার কাতার বিশ্বকাপে গোল করলে প্রথম আর্জেন্টাইন হিসেবে চার বিশ্বকাপে গোল করার রেকর্ড গড়বেন মেসি।

বর্তমানে দিয়াগো ম্যারাডোনা ও গাব্রিয়েল বাতিস্তুতার সমান বিশ্বকাপে ৩টি করে গোল করেছেন। ম্যারাডোনা ১৯৮২, ১৯৮৬, ১৯৯৪ বিশ্বকাপে এবং বাতিস্তুতা ১৯৯৪, ১৯৯৮, ২০০২ বিশ্বকাপে।

বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার হয়ে সর্বোচ্চ ১০ গোল করেছেন বাতিস্তুতা। বাতিস্তুতাকে টপকাতে ৫ গোল লাগবে মেসির। বর্তমানে মেসির মোট গোল ৬টি। ২০০৬ সালে ১টি, ২০১৪ সালে ৪টি এবং ২০১৮ সালে ১টি গোল করেছিলেন মেসি।

‌ দ্বীনী শিক্ষার দ্যুতি ছড়াচ্ছে বিয়ানীবাজারে জামেয়া আশরাফিয়া ইসলামনগর মাটিজুরা