মহামারী করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে সীমিত পরিসরে সরকারি-বেসকারি অফিস আগামী ৩ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে দোকানপাট-শপিংসেন্টার খোলা রাখার সময় আরও ৩ ঘণ্টা বাড়ানো হচ্ছে।

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামীকাল (১ জুলাই) থেকে ৩ আগস্ট পর্যন্ত দোকান-পাট, শপিংমলগুলো সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। মঙ্গলবার (৩০ জুন) জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন গণমাধ্যমকে একথা জানিয়েছেন।

আগের নির্দেশনায় বিকেল ৪টা পর্যন্ত দোকান ও শপিংমলগুলো খোলা রাখার কথা বলা হয়েছিল। দোকান-পাট, শপিংমলগুলো চালু রাখার আগের নির্দেশনার মেয়াদ শেষ হয়েছে আজ মঙ্গলবার।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, হাট-বাজার, দোকানপাটে ক্রয়-বিক্রয়কালে পারস্পরিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে প্রতিপালন করতে হবে। শপিংমলের প্রবেশমুখে হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখতে হবে। শপিংমলে আগত যানবাহনগুলোকে অবশ্যই জীবাণুমুক্ত করার ব্যবস্থা রাখতে হবে। হাট-বাজার, দোকানপাট ও শপিংমলগুলো আবশ্যিকভাবে সন্ধ্যা ৭টার মধ্যে বন্ধ করতে হবে।

গত ৮ মার্চ শুরুতে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী প্রথম ধরা পড়ে। পরিস্থিতি অবনতির দিকে যেতে থাকলে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করে সরকার। এরপর দফায় দফায় ছুটি বাড়তে থাকে।

সর্বশেষ ঘোষণা অনুযায়ী গত ৩০ মে পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ছিল। পরে ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে অফিস খুলে দেয়া হয়, চালু করা হয় গণপরিবহন। পরে এই ব্যবস্থা ৩০ জুন পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়। সেই মেয়াদ শেষ হচ্ছে আজ।

বিয়ানীবাজারে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে সবজি বীজ ও সহায়তা চেক বিতরণ