কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হলো কানাইঘাট পৌরসভা নির্বাচন।

রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত এ নির্বাচনে মেয়র পদে নৌকার প্রার্থী লুৎফুর রহমান ৩৮৩২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী জগ প্রতীকের সোহেল আমিন পেয়েছেন ৩৬৮৬ ভোট, নারিকেল গাছ প্রতীকে বর্তমান মেয়র নিজাম উদ্দিন পেয়েছেন ৩০৬৩ ভোট, ধানের শীষ প্রতীকের শরিফুল হক পেয়েছেন ২৫২০ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোবাইল ফোন প্রতীকের কাওছার আহমদ পেয়েছেন ৬১৩ ভোট ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের হাতপাখা প্রতীকের মাওলানা নজির আহমদ পেয়েছেন ২১২ ভোট।

এদিকে নির্বাচনে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১নং ওয়ার্ডে পানির বোতল প্রতীকে কাওছার আহমদ ৭৩৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উটপাখি প্রতীকে জাহাঙ্গীর আলমের প্রাপ্ত ভোট ৪৮৬।

২নং ওয়ার্ডে পাঞ্জাবী প্রতীকে মো. মোয়াজ্জম হোসেইন ৪৫৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পানির বোতল প্রতীকে আব্দুল হান্নানের ৩৮৭ ভোট পেয়েছেন।

৩নং ওয়ার্ডে পাঞ্জাবী প্রতীকে বর্তমান কাউন্সিলর মো. বিলাল উদ্দিন ৭০৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উটপাখি প্রতীকে কামাল উদ্দিনের প্রাপ্ত ভোট ৪৫৮। ৪নং ওয়ার্ডে ডালিম প্রতীকে মো. জসিম উদ্দিন ৪১০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী টেবিল ল্যাম্প প্রতীকে তাজুল ইসলাম পেয়েছেন ৩৬৩ ভোট।

৫নং ওয়ার্ডে টেবিল ল্যাম্প প্রতীকে বর্তমান কাউন্সিলর আবিদুর রহমান ৫৭৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ব্ল্যাক বোর্ড প্রতীকে আজমল হোসেনের প্রাপ্ত ভোট ৫২৩। ৬নং ওয়ার্ডে পাঞ্জাবী প্রতীকে বর্তমান কাউন্সিলর মো. ফখরুদ্দীন ৪৬৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উটপাখি প্রতীকে মো. ফখর উদ্দিন শামীম পেয়েছেন ৩৭৮ ভোট।

৭নং ওয়ার্ডে পাঞ্জাবী প্রতীকে মো. জমির উদ্দিন ৮৬৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উটপাখি প্রতীকে আব্দুর রহিমের প্রাপ্ত ভোট ২৮১। ৮নং ওয়ার্ডে পাঞ্জাবী প্রতীকে মো. জাকির হোসেন ৮৯৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পানির বোতল প্রতীকে তাজ উদ্দিন ৪৫০ ভোট পেয়েছেন।

আরও পড়ুন : কানাইঘাটে পৌর মেয়র হলেন নৌকার লুৎফর রহমান

৯নং ওয়ার্ডে পাঞ্জাবী প্রতীকে বর্তমান কাউন্সিলর শাহাব উদ্দিন চৌধুরী ৫৯৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উটপাখি প্রতীকে আবুল বাশারের প্রাপ্ত ভোট ৫৯৫।

এছাড়া সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১নং ওয়ার্ডে বলপেন প্রতীকে রহিমা বেগম ১৯৫৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আংটি প্রতীকে মোছা. রানু বেগম ৭৫১ ভোট পেয়েছেন। ২নং ওয়ার্ডে আনারস প্রতীকে মোছা. আছিয়া বেগম ৩২২৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী অটোরিকশা প্রতীকে হাসিনা বেগম ১১৪৯ ভোট পেয়ছেন।

৩নং ওয়ার্ডে চশমা প্রতীকে আছমা বেগম ২৬৫৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতীকে প্রভাতী রানী দাস ১৬৯৮ ভোট পেয়েছেন।

কানাইঘাট পৌরসভায় ৯টি ভোট কেন্দ্রে ১৯ হাজার ৪২৭টি ভোটের মধ্যে কাস্ট হয় ১৪ হাজার ৪১৪টি। এর মধ্যে ৪৮৮টি ভোট বাতিল হলেও বৈধ ভোটের সংখ্যা দাঁড়ায় ১৩ হাজার ৯২৬টি। প্রদত্ত ভোটের হার ৭৪ দশমিক ২০ শতাংশ।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজে ডিগ্রি ২য় বর্ষের পরীক্ষা শুরু