কানাইঘাটে ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। পুলিশ মঙ্গলবার সকালে স্বামীর বাড়ী থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে।

জানা যায়, ৯ মাস পূর্বে কানাইঘাট সদর ইউনিয়নের রাধানগর গ্রামের তোতা মিয়ার মেয়ে তামান্না বেগমের বিয়ে হয় একই উপজেলার রাজাগঞ্জ ইউনিয়নের দাবাধরি গ্রামের আব্দুর রহিমের পুত্র মুদী ব্যবসায়ী জুনেদ আহমদের সাথে।

বিয়ের ৩/৪ মাস পেরিয়ে যাওয়ার পর পারিবারিক কলহের জের ধরে তামান্নাকে প্রায়ই তার ভাসুর খালেদ আহমদ মানষিক ও শারিরীক ভাবে নির্যাতন করে আসছিল। সম্প্রতি ভাসুর খালেদ আহমদ প্রবাস থেকে বাড়িতে এসে তামান্নাকে তার স্বামী সহ পৃথক করার জন্য পরিবারের সদস্যদের উপর চাপ প্রয়োগ সহ এমনকি নানা ভাবে গালিগালাজ করে আসছিল।
৩/৪ দিন পূর্বে স্বামী জুনেদ আহমদের অনুপস্থিতিতে অন্তঃসত্ত্বা তামান্নাকে শারিরীক ভাবে মারপিট করার জন্য খালেদ উদ্যত হলে প্রানের ভয়ে তামান্না স্বামীর ঘর ছেড়ে বাড়ির অন্য একটি ঘরে গিয়ে প্রাণের ভয়ে আশ্রয় নেয়। ভাসুরের নির্যাতনে বিষয়টি তামান্না তার মা-বাবাকে পরিবারের সদস্যদের অবহিত করে ভাসুরের ভয়ে স্বামীর ঘর থেকে আর বের হয়নি তামান্না বেগম বলে তার স্বজনরা জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার ফজরের নামাজ পড়তে তামান্নার স্বামী মসজিদে যান এবং স্ত্রীকেও নামাজ পড়ার জন্য বলেন।নামাজ থেকে চলে এসে জুনেদ আহমদ তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে বসত ঘরের রান্না কোটার তীরের সাথে ওড়না পেছানো লাশ দেখতে পেয়ে শোর চিৎকার শুরু করেন।

এ ঘটনার খবর পেয়ে থানার এসআই মো. সাইদুর রহমান দুপুর ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় তামান্নার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কানাইঘাট থানায় নিয়ে আসেন এবং নিহতের স্বামী জুনেদ আহমদকেও থানায় নিয়ে আসা হয়। তামান্নার বাবাসহ স্বজনরা জানিয়েছেন, তামান্নার ভাসুর খালেদ নির্যাতনের ঘটনায় মানষিক কারণে তাদের ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা মেয়ে মারা গেছে।

লাশ উদ্ধারকারী থানার এসআই মো. সাইদুর রহমান জানিয়েছেন, প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে তামান্না আত্মহত্যা করেছে। লাশের সুরতহাল করা হয়েছে এবং ময়না তদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আত্মহত্যার প্ররোচনায় তামান্না বেগমের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়েরর প্রস্তুতি চলছে।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজারে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল : সেমিফাইনালে মোল্লাপুর ইউনিয়ন, পৌরসভা-চারখাই ম্যাচ অমীমাংসিত