অবশেষে মিলল বহুল প্রতীক্ষিত সেই স্বস্তির খবর। করোনাযুদ্ধে জয়ী হয়েছেন লাল-সবুজের কিংবদন্তী ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা। তবে তার স্ত্রী সুমনা হক সুমি এখনো করোনা পজিটিভ রয়েছেন। নিজেই এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে এ খবর জানিয়েছেন ক্যাপ্টেন মাশরাফি।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিটের মাশরাফির ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। জানা গেছে, গত পরশু রোববার (১২ জুলাই) দ্বিতীয়বারের মতো করোনা পরীক্ষা করতে দিয়েছিলেন নড়াইল এক্সপ্রেস। আজ (মঙ্গলবার) জানতে পারলেন, তার শরীরে আর এই ভাইরাসের উপস্থিতি নেই।

ফেসবুক পোস্টে মাশরাফি লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহর রহমতে ও আপনাদের সবার দোয়ায় আমার কনোরাভাইরাস পরীক্ষার ফল এসেছে নেগেটিভ। আজ রাতেই ফল জানতে পেরেছি। এই পুরো সময়টায় যারা পাশে ছিলেন, দোয়া করেছেন, অনেকে উদ্বিগ্ন ছিলেন ও নানাভাবে খোঁজ নিয়েছেন বা নেওয়ার চেষ্টা করেছেন, সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা।’

মাশরাফি আরও লিখেছেন, ‘শনাক্ত হওয়ার পর দুই সপ্তাহের বেশি পেরিয়ে গেলেও আমার স্ত্রীর করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফল এখনো পজিটিভ। তবে সবার দোয়ায় সে ভালো আছে। তার জন্য দোয়া প্রার্থনা করছি। আমি বাসায় থেকে চিকিৎসা নিয়েই সেরে উঠেছি। যারা আক্রান্ত হয়েছেন, সবাই সাহস রাখবেন। আল্লাহর ওপর ভরসা রাখবেন। নিয়ম মেনে চলবেন।’

সবাইকে নিরাপদে থাকার আহ্বান জানিয়ে ক্যাপ্টেন ম্যাশ লিখেছেন, ‘সবাই নিরাপদে থাকবেন, ভালো থাকবেন। একসঙ্গে থেকে করোনাভাইরাসের সঙ্গে আমাদের লড়াই চালিয়ে যেতে হবে।’

বেশ কয়েকদিন শরীরে ঠান্ডা-জ্বরের উপস্থিতি দেখে গত ১৯ জুন করোনা পরীক্ষার জন্য রাজধানীর একটি হাসপাতালে নমুনা দিয়েছিলেন মাশরাফি। পরদিন ২০ জুন জানতে পারেন, তিনি করোনায় আক্রান্ত। এরপর থেকে নিজ বাসাতেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন দেশসেরা এই অধিনায়ক। মাশরাফির পর করোনায় আক্রান্ত হন তার ছোট ভাই মোরসালিন বিন মোর্ত্তজা ও স্ত্রী সুমনা হক সুমি।

আক্রান্তের ৯ দিন পরে প্রথমবারের মতো করোনা পরীক্ষা করালে সেবারও পজিটিভ আসে রিপোর্ট। অবশ্য তাতে ভড়কে যাননি ক্যাপ্টেন ফ্যান্টাস্টিক। বরং দৃঢ় মনোবল নিয়ে অদৃশ্য শত্রুর মোকাবিল করেছেন। সে যুদ্ধে আজ জয়ের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এলো।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

দিন শেষে শূণ্য হাতে ঘরে ফিরছেন বিয়ানীবাজারের অধিকাংশ মাইক্রো চালক