সারাদেশে মতো বিয়ানীবাজারের সাধারন মানুষের মধ্যেও করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণে আগ্রহ বাড়ছে। টিকা গ্রহণ করতে প্রতিদিনই বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মানুষজন ভিড় করছেন। অনেককে টিকা নেয়ার পর উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে দেখা গেছে। মঙ্গলবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকাদান কর্মসূচি চলাকালে ৪০ বছর ও তার তদূর্ধ্ব এবং সম্মুখসারীর করোনা যোদ্ধাদের টিকা নিতে দেখা গেছে। সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত বিয়ানীবাজার উপজেলার ৩২০জন মানুষ এই টিকা গ্রহণ করেছেন।

মঙ্গলবার দুপুরে করোনার টিকা নেন ইউএনওসহ উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। টিকা গ্রহনের পর তারা শারিরীকভাবে সুস্থতাবোধ করছেন জানিয়ে ভয়-শঙ্কা না করে টিকা গ্রহণে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তারা।

অনলাইনে রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে পর্যায়ক্রমে প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দুটি পৃথক বুথে করোনার বিনামূল্যে টিকাদান কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোয়াজ্জেম আলী খান চৌধুরী। তিনি বলেন, ৪০ বছর থেকে ঊর্ধ্বের যেকোন বয়সী মানুষ ঠিকা গ্রহণের নিবন্ধন করতে পারবেন।

এর আগে রবিবার সকাল ১১টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেেক্সে টিকা কার্যক্রম উদ্বোধনের পর প্রথম এই ভ্যাকসিন গ্রহণ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান খান। এরপর একে একে টিকা গ্রহণ করেন রাজনীতিবিদ, চিকিৎসক, শিক্ষক ও সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

বিয়ানীবাজারে ব্যবসায়ীর ছাদ বাগান : ফলছে স্ট্রবেরি, কালো টমেটো ও ৭ ধরনের লেবু