সিলেট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টে উত্তাপ ছড়াল আরও একটি ম্যাচে। শুক্রবার দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে উত্তেজনা ছড়ানো লড়াইয়ে বিজয়ের হাসি হেসেছে সিলেট ইউনাইটেড। আরিফুল হকের দারুণ অলরাউন্ডিং পারফর্মেন্সে সিলেট সিটি কর্পোরেশন ওয়ারিয়র্সকে ৫ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে আসরে টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে ইউনাইটেড।

ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় জাকির হাসানের নেতৃত্বাধীন সিলেট সিটি কর্পোরেশন। আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুর দিকে ভালো ব্যাটিং করলেও, ধীরে ধীরে রানের গতি কমতে থাকে ওয়ারিয়র্সদের। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটের বিনিময়ে ১১৫ রানের পুঁজি পায় দলটি। ১ ছক্কা ও ২ চারের মারে সর্বোচ্চ ২৯ রান আসে অধিনায়ক জাকিরের ব্যাট থেকে। তবে এর জন্য ৩৪ বল খেলে ফেলেন এই উঠতি তারকা ক্রিকেটার।

ইউনাইটেডের হয়ে ৪ ওভার বল করে মাত্র ১৭ রান খরচায় ৩টি উইকেট শিকার করেন আরিফুল হক।

১১৬ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতে ধীর গতির ব্যাটিং দেখা যায় ইউনাইটেড ব্যাটসম্যানদের। বেশি সুবিধা করতে পারেননি টপ অর্ডারে ব্যাট করতে নামা ইমরুল কায়েসও। জাতীয় দলের এই তারকা নিজের ব্যাটিংয়ে ভালো শুরুর ইঙ্গিত দিয়েও শেষ পর্যন্ত হতাশ করেন। জয়নুলের পেসে কুপোকাত হয়ে উইকেটের পেছনে থাকা জাকিরের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে আসেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। এর আগে ইমরুল করে যান মাত্র ১৩ রান।

তবে ওপেনার শেহনাজের ৪০ রানের দৃঢ়ময় ইনিংস এবং শেষ দিকে আরিফুলের ২০ রানের অপরাজিত ঝড়ো ইনিংসে ভর করে ৭ বল হাতে রেখে ৫ উইকেটের জয় তুলে নেয় ইউনাইটেড। ওয়ারিয়র্সের হয়ে শুভ ২২ রান খরচ করে ৩টি উইকেট শিকার করেন। ব্যাটে-বলে দারুণ পারফর্মেন্স করে ম্যাচসেরা নির্বাচিত হয়েছেন আরিফুল হক।

ম্যাচ শেষে সেরা খেলোয়াড় আরিফুল হকের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন বিসিবি পরিচালক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল ও সিলেট সিটি কর্পোরেশন মেয়র আরিফুল হক।

উল্লেখ্য, এই নিয়ে টানা দুই জয়ে গ্রুপ পর্বের পয়েন্ট তালিকায় সবার ওপরে উঠে গেল মোহাম্মদ রাসেলের শিষ্যরা।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

অধ্যাপক গোলাম কিবরিয়া সম্মাননা স্মারকগ্রন্থ ‘উৎসারিত আলো’র মোড়ক উন্মোচন