আজ মঙ্গলবার আশির দশকের শক্তিমান কবি ফজলুল হকের ৬০তম জন্মদিন। ১৯৬১ সালের ১ সেপ্টেম্বর তিনি প্রাচীনতম জনপদ পঞ্চখণ্ড তথা বিয়ানীবাজার উপজেলার কসবা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

ফজলুল হক কবিতা লেখার পাশাপাশি সাহিত্যের বিভিন্ন অঙ্গনে তাঁর বিচরণ। কবিতাকে বিভিন্নভাবে রুপ দিয়েছেন, লিখেছেন গদ্য ও গীতিকবিতা। বাংলাদেশ বেতারের খ্যাতিমান এ গীতিকার প্রগতিশীল সংস্কৃৃতিকর্মী ও প্রবিন সাংবাদিক। নিজস্ব একটি সৃজনশীল ধারা কবিতা ও গদ্য রচনার অন্যতম বৈশিষ্ট্য।

তাঁর প্রকাশিত উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ ‘পৃথক দংশন’, ‘কবির জন্মদিন’, ‘শঙ্খ ঘোষের সঙ্গে নির্বাসনের দিনে’। এছাড়া সম্পাদনা গ্রন্থ ‘তপোধীর ভট্টাচার্য :জীবন ও কর্ম’।

আশির দশকের শক্তিমান এ কবির কবিতা ঢাকা ও কলকাতা থেকে প্রকাশিত পত্রপত্রিকা এবং সাহিত্য সংকলন-সাময়িকীতে নিয়মিত প্রকাশিত হয়।

দার্শনিক পণ্ডিত রঘুনাথ শিরোমণি, শ্রীচৈতন্য পার্ষদ শ্রীবাস পণ্ডিত, কবি বৃন্দাবন দাস, মহেশ্বর ন্যায়লঙ্কার, শহীদ বুদ্ধিজীবী ড. জি সি দেব, কথা সাহিত্যিক আকাদ্দস সিরাজুল ইসলাম ও কবি তাত্ত্বিক অধ্যাপক ড. তপোধীর ভট্টাচার্য প্রমুখের জন্মভূমি পিতৃভূমি পঞ্চখণ্ডের মনীষা ও পরম্পরার নিকটতম প্রতিনিধি এই কবি।

ব্যক্তি জীবনে দুই পুত্র ও এক কন্যার জনক কবি ফজলুল হক।

এবিটিভির সর্বশেষ প্রতিবেদন-

পঞ্চখন্ডের নামে জৈব সার বাজারজাত করবেন বিয়ানীবাজারের কৃষকরা