২২শে মে, ২০১৯ ইং | ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

গোধূলি রঙের ভোর কাব্যগ্রন্থ নিয়ে কবি নিলয় গোস্বামীর পর্যালোচনা

https://i1.wp.com/beanibazarnews24.com/wp-content/uploads/2019/02/guduli.jpg?resize=1200%2C630

“সবুজ উচ্চারণে উঠে আমাদের অমুঘ প্রেম- সে যেন সরীসৃপ স্পর্শের পরে একটুখানি রাঙা ক্ষমা” প্রেমের উচ্চারণ সবুজ হয় , এই আশ্চর্য ভাবনা আর কলমের সম্মোহনী ছোঁয়া, শুদ্ধ প্রেমিক হৃদয়কে ভালোবাসার আয়োজনে স্নিগ্ধ করে দেয়।স্পর্শনেন্দ্রিয় আত্মনিষ্ঠ কর্তব্যের হিসেব কষে উপযুক্ত বিনিময়ে জমিয়ে রাখে রাঙা ক্ষমা আর তৃপ্তির পরাজয়।
কী অপূর্ব কাব্যিক সফল পংক্তি জোড় !
“আঁচল টুকু পেতে রাখো বর্ণগন্ধে,
মায়ার বাস হোক পৃথিবীরেখার বছরে”

ভালোবাসার আয়োজন আর শুভ কামনার উচ্চারণে ভরে উঠেছে কবির বলিষ্ঠ আহ্বান।

এসব আমি পড়ে পড়ে মুগ্ধ হচ্ছি কবি ঈস্পিতা অবনীর চৌধুরীর ‘গোধূলি রঙের ভোর’ কাব্যগ্রন্থের ‘ক্যানভাস’ কবিতা থেকে। এ যেন প্রতিটি ভালোবাসাময় হৃদয়ের ক্যানভাস। কবিতার মিষ্টি সুর প্রেমালাপের গুঞ্জরন ছিটিয়ে দিচ্ছে কাব্যগ্রন্থের পাতায়।

আবার,
” চোরাবালিকে আপন ভেবে
কী ভালোবেসেছিলাম !
শুভ্র প্রঁপচে তা ভেসে গেলো ”

কী আশ্চর্য ভাবনার প্রতিফলন !
হৃদ্য অনুভূতি আর চৈতন্য চুরমার হয়ে যাওয়ার
প্রকাশ- অতিমাত্রায় কবির কলমে ফুটেছে আক্ষেপের বুদবুদ হয়ে।

“মনটাকে সন্ধ্যার পদাবলি
ভোরের প্রার্থনা দিয়ে
নিজে ভরাতে চেয়েছিলাম”
কী মুগ্ধতা ছড়িয়ে যাচ্ছে এই পঙক্তি গুলো !
শুধু অপূর্ব রেশ রেখে যাচ্ছে অপূর্ণ আকাঙ্ক্ষার।

অক্ষরবৃত্ত ছন্দের পোক্ত বুননে এক উন্নত কবিতা হয়ে উঠেছে ‘অপূর্ণতা’।

‘কোথাও কেউ নেই’ কবিতা পড়লে ভাবনার আভূমি ছিটিয়ে যায় দর্শনের লুকোচুরি সত্ত্বা।

‘একিমোসিস ‘ কবিতায় শান্তনুর উপস্থিতি আর ভালোবাসার আশ্চর্য চিত্র এঁকে যাওয়ার প্রবণতা !

‘মৃত্তিকা এক আগুন’ কবিতায় অপূর্ব উপমায় প্রেমের প্রকাশ আর উপস্থিতি জানান দিয়ে গেছেন কবি মুন্সিয়ানা দিয়ে।

‘চিহ্ন’ ‘দলছূট অনুভূতি’ কবিতারা মুগ্ধ প্রেমের রণন দিয়ে যায়।
‘অপূর্ণ অস্তরাগ’ কবিতাটি পড়ে চোখের সীমানা জুড়ে নেমে আসে অশ্রু ঢল।

‘উচ্ছিষ্ট ‘ ‘অতৃপ্ত ফানুস’ কবিতারা গভীর পাঠক মাত্রই আকর্ষণের উপযোগ হয়ে থাকবে।

‘গোধূলি রঙের ভোর ‘ কাব্যগ্রন্থ ঘোর লাগিয়ে দিয়েছে আমার পাঠক সত্ত্বার মনঘরে।

যেকোনো পাঠক এই কাব্যগ্রন্থ পড়ে তৃপ্তির সমারোহে নিজেকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাখবেন বললে অত্যুক্তি হবেনা।কবিকে কৃতজ্ঞতা জানাই এরকম একটি কাব্যগ্রন্থ পাঠকের কাছে মননের সুস্বাদু খোরাক করে উপহার দেবার জন্য।

‘গোধূলি রঙের ভোর’ বেঁচে থাকুক আগামী সময়ের স্নায়ুতে। সাহিত্যের সম্ভার হয়ে আলো ছড়িয়ে যাক কাব্যের অপূর্ণ ভাণ্ডারে।

A+ A-
Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ সংবাদ

নালবহর ওয়েলফেয়ার ট্রাষ্ট ইউকে'র উদ্যোগে অস্বচ্ছল পরিবারের মধ্যে নগদ অর্থ বিতরণ

গোলাপগঞ্জে ভেজাল বিরোধী অভিযানে দুই প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

বিয়ানীবাজারে ছাত্র জমিয়তের প্রবাসী সংবর্ধনা ও ইফতার মাহফিল কাল

নালবহরে ক্বিরাত ও হামদ-নাত প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব সম্পন্ন

সাবেক ক্রিকেটারদের বিশ্বকাপ পর্যালোচনা- সেমিফাইনালের চার দলে নেই বাংলাদেশ!

কোপায় মেসির সঙ্গী আগুয়েরো-দিবালা, নেই ইকার্দি

ঘোষণাঃ