২৩শে মার্চ, ২০১৯ ইং | ৯ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সরকারের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পাচ্ছেন নাহিদসহ কয়েকজন সাবেক মন্ত্রী!

https://i2.wp.com/beanibazarnews24.com/wp-content/uploads/2019/01/nahid-hasina.jpg?resize=1200%2C630

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয়ের মাধ্যমে টানা তৃতীয় মেয়াদে সরকার গঠন করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট। নির্বাচনের ফলাফলে যতটা না চমক ছিল তার চেয়ে বেশি চমক হয়ে এলো এবারের মন্ত্রিসভা গঠন নিয়ে। একঝাঁক তরুণ এবং নতুন সাংসদদের নিয়ে গঠিত হয়েছে এবারের মন্ত্রিপরিষদ, যেখানে বাদ পড়েন সাবেক বিতর্কিত ও হেভিওয়েট মন্ত্রীরা- যা ছিল অনেকের কাছে অপ্রত্যাশিত।

পুরনো মন্ত্রিসভা থেকে বিতর্কিতদের পাশাপাশি বাদ পড়েন বেশ কয়েকজন সফল মন্ত্রী, যাদের মন্ত্রণালয় বিগত সরকারের আমলে ছিল সফল এবং অনেকাংশেই বিতর্কের ঊর্ধ্বে। সেই মন্ত্রণালয়গুলোর মধ্যে সবচেয়ে সফল ছিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বিগত প্রায় ১০ বছর এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেন সিলেট-৬ (গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজার) আসনের সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ। সদ্য সাবেক এই শিক্ষামন্ত্রীর আমলে দীর্ঘদিন পর বাংলাদেশ সরকার প্রণয়ন করতে সক্ষম হয় সমন্বিত শিক্ষানীতি, যেটা ছিল সরকারের জন্য একটি বিশাল চ্যালেঞ্জ। আর সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে শিক্ষানীতি প্রণয়নে সফল হন নুরুল ইসলাম নাহিদ। এছাড়াও তার আমলে শিক্ষাক্ষেত্রে যুগান্তকারী সফলতা আসে। তার মধ্যে অন্যতম ছিল বছরের প্রথম দিনে সারাদেশের শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেওয়া। বাংলাদেশ বিশ্বের একমাত্র দেশ যেখানে একসাথে এত শিক্ষার্থীদের হাতে একদিনে বই তুলে দেওয়া হয়। সে কাজটি  শিক্ষামন্ত্রী থাকাকালীন সময়ে সফলতার সাথে গত পাঁচ বছর ধরে করে আসছেন। এই কাজগুলো সরকারসহ নুরুল ইসলাম নাহিদকে নিয়ে গেছে অনন্য এক উচ্চতায়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অভাবনীয় সাফল্যের জন্য সদ্য সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ইউনেস্কোর সহ-সভাপতিও নির্বাচিত হন।

এত  সাফল্যের মধ্যেও গত দুই বছর বেশ কয়েকটি পাবলিক পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় বিব্রত হতে হয়েছে শিক্ষামন্ত্রীসহ মন্ত্রণালয়কে। এ ঘটনার কারণে সরকারকেও পড়তে হয়েছে বেকায়দায়। বিভিন্ন মহল থেকে চাপ আসে শিক্ষামন্ত্রী ওপর, তবে প্রধানমন্ত্রীর সমর্থন ও দিকনির্দেশনায় চ্যালেঞ্জিং এ সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছিলেন নাহিদ। যার ফলে এ বছর অনুষ্ঠেয় কোনো পাবলিক পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি।

একজন সফল মন্ত্রী হিসেবে অনেকে ধরেই নিয়েছিলেন নুরুল ইসলাম নাহিদ আবারও পেতে যাচ্ছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব, বিশেষ করে তার এলাকার লোকজন। নতুন মন্ত্রিসভায় তার নাম না দেখে অনেকেই অবাক হন, আর তার নির্বাচনী এলাকার লোকজন হন হতভম্ব। তবে নুরুল ইসলাম নাহিদ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালনের শেষ কার্য দিবসে সাংবাদিকদের বলেন, তিনি নতুনদের জায়গা করে দিতে চান। তিনি মন্ত্রণালয়ের নেই এজন্য কাউকে কষ্ট না পাওয়ার অনুরোধ জানান।

নতুন মন্ত্রিপরিষদ শপথ নেওয়ার পরপরই একটি বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, নুরুল ইসলাম নাহিদসহ আরো বেশ কয়েকজন সফল মন্ত্রীকে সরকারের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় পুনরায় দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে থাকা ছয়টি মন্ত্রণালয়ের যেকোনো একটির দায়িত্ব পেতে পারেন নাহিদ। তবে সেক্ষেত্রে সর্বাধিক আলোচনায় রয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এ মন্ত্রণালয়ে দায়িত্বে ছিলেন সদ্য প্রয়াত আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। এছাড়াও তারা যদি কোন মন্ত্রনালয় না পান তবে তাদেরকে মন্ত্রী পদমর্যাদায় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা করে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেয়া হতে পারে।

এদিকে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে প্রধানমন্ত্রী গুরুত্ব দিয়েই বলেছিলেন, এবার তিনি সরকারকে দল থেকে আলাদা রাখতে চান। দলকে শক্তিশালী আর সুসংগঠিত করতে তিনি চান সরকার এবং দলকে আলাদা রাখতে হয়তো সেজন্যই দু-একজন ছাড়া দলের কোনো প্রেসিডিয়াম সদস্য কেউই এবারের মন্ত্রিসভায় রাখা হয়নি। আর যদি তাই হয় নাহিদ সহ অন্যান্য প্রেসিডিয়াম সদস্যদের দলের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দিয়ে দলকে সুসংগঠিত করার কাজেও লাগাতে পারেন প্রধানমন্ত্রী। এখন শুধু অপেক্ষা সাবেক হেভিয়েট মন্ত্রীদের মধ্যে কাদের মন্ত্রী সভায়ে রাখা হচ্ছে। কাদের হাতে থাকছে দলের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব।

A+ A-
Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ সংবাদ

এবি মিডিয়া গ্রুপের এমডি ফখরুল ইসলাম দেলোয়ারের ফুফু’র ইন্তেকাল ।। বিভিন্ন মহলের শোক

অবশেষে পুলিশের খাঁচায় গোলাপগঞ্জের ডাকাত সর্দার হাত কাটা হাসমত

বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের সোনালী উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী নির্বাচিত

গোলাপগঞ্জে যুবকের গলাকাটা বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার

নিউজিল্যান্ডে ভাইয়ের পাশেই চিরনিদ্রায় শায়িত গোলাপগঞ্জের পারভীন

সিলেটে বাউল সংগঠনের বৈশাখী উৎসবের প্রস্তুতি সভা

ঘোষণাঃ