১০ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৭শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সিলেট-০৬ ।। ছাড় দেবে না বিএনপি, জামায়াত দেখাতে চায় চমক

https://i0.wp.com/beanibazarnews24.com/wp-content/uploads/2018/11/7777.jpg?resize=1200%2C630

ভোটের হিসেবে জামায়াতে ইসলামীর চেয়ে বিএনপি এগিয়ে থাকলেও সিলেট-০৬ আসনে নিবন্ধন বাতিল হওয়া জামায়াতে ইসলামী বার বার টেক্কা দিয়েছে বিএনপিকে। বিশেষ করে কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সিদ্ধান্তে ২০০১ সালে জামায়াতকে ছাড় দিতে হয়েছে সিলেট-০৬ আসনটি।

এবার এ আসনটি ছাড় দিতে নারাজ বিএনপি। কেন্দ্রের কাছে আসনটি বিএনপি’র আওতায় রাখতে নেতাদের অনুরোধ জানিয়েছেন স্থানীয় ও জেলার দায়িত্বশীলরা। যে কোন মূল্যে সিলেট -০৬ আসনে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বিএনপি’র মনোনয়ন প্রত্যাশীদের যে কেউ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন। এ আসনে বিএনপি’র সম্ভাব্য প্রার্থী ৫জন। সংগঠন সূত্রে জানিয়েছে দলের মনোনয়ন পেতে সংগঠনের মনোনয়ন পত্র ক্রয় করেছেন তাঁরা।

২০০১ সালে জোটগত সিদ্ধান্তে সিলেট-০৬ আসনটি পেয়ে যায় জামায়াতে ইসলামী। তবে নির্বাচন কমিশনের যদ্ধাপরাধীর অভিযোগে অভিযুক্ত দলটি নিবন্ধন হারিয়েছেন। ফলে তাদের প্রতীক দাড়িপাল্লা নিয়ে এবারের একাদশ সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবে না জামায়েতের মনোনীত প্রার্থী। সংগঠনের একাধিক দায়িত্বশীল জানান, জামায়াতে ইসলামীর একমাত্র মনোনয়ন প্রত্যাশী মাওলানা হাবিবুর রহমানকে জোটগতভাবে মনোনয়ন দেয়া হবে। ফলে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করতে তাদের কোন আপত্তি নেই।  তারা এ দাবি প্রতি জোর দিয়ে ২০০১ সালের সিদ্ধান্তের বিষয়টি তুলে ধরেন দায়িত্বশীলরা।

সিলেট-০৬ আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেতে জোর লবিং করছেন কেন্দ্রীয় ও জেলার কয়েকজন দায়িত্বশীল। জাসাসের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক চিত্র নায়ক হেলাল খান, জেলা বিএনপি’র সভাপতি আবুল কাহের শামীম, সাবেক ছাত্রদলের আহবায়ক শিল্পপতি ফয়ছল আহমদ চৌধুরী, জেলা বিএনপি’র সাবেক সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রশিদ ও জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ইমরান আহমদ চৌধুরী।

ভোটের মাঠে জামায়াতে ইসলামীর চেয়ে বিএনপি কয়েকগুণ বেশি শক্তিশালী। তবে বিএনপি মামলার জটিলতা দায়িত্বশীলরা অনেকটা আড়ালে থাকলেও দলীয় কার্যক্রম স্বচলভাবে পরিচালনা করছেন বলে দাবি করেছেন। দল অতিতের যে কোন সময়ের চেয়ে এখানে শক্তিশালী। কৌশলে নিজেদের দলীয় কার্যক্রমে স্বচল রাখছেন।  বিএনপি’র দায়িত্বশীলরা বলেন, বিগত সময়ে জামায়াতে ইসলামীকে ছাড় দিয়ে এ আসনটি মুলত আওয়ামী লীগকে উপহার দেয়া হয়েছে। জামায়াতে ইসলামী ভোটের রাজনীতিতে অনেকটা বুমেরাং। তাদের কথার সাথে কাজের কোন মিল নেই। গত বিয়ানীবাজার পৌরসভার নির্বাচনে জামায়াতে বর্তমান ভোটের আসল চিত্র ফুটে উঠেছে। কেন্দ্র থেকে এ আসনটি ছাড় দেয়া হলে সেটা নিজেদের পায়ে কুড়াল মারার শামিল হবে।

উপজেলা জামায়াতে ইসলামীর এক দায়িত্বশীল নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, জোটগত সিদ্ধান্তে আসনটি জামায়াতে ইসলামীকে দেয়া হবে। ভোটের হিসাবে বিএনপি থেকে কোন অংশে জামায়াতে ইসলামী পিছিয়ে নয় দাবি করে তিনি বলেন, সবাই এক সাথে কাজ করলে এখানে আওয়ামী লীগকে হারানো সম্ভব। তিনি ২০০১ সালের নির্বাচনে চিত্র তুলে ধরে বলেন, গত নির্বাচনে জোটগত প্রার্থী থাকলেও মাওলানা হাবিবুর রহমান জোটের শরিকদের সহযোগিতা পাননি। এ খেসারত দিতে হয়েছে জোটগতভাবে।

উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি নজমুল হোসেন পুতুল বলেন, সিলেট-০৬ আসন এবার বিএনপি থেকে জোটের প্রার্থী দেয়া হবে। আমরা কেন্দ্রকে বিএনপি’র ত্যাগী নেতাদের সাথে সম্পৃক্ত এরকম প্রার্থী বাছাই করার অনুরোধ করেছি। একই সাথে জোটগত সিদ্ধান্তে যে কোন মূল্যে আসনটিতে বিএনপি’র প্রার্থী দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছি। আমাদের বিশ্বাস বিএনপি প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করলে শেষ হাসি আমরা হাসবো।

A+ A-
Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ সংবাদ

নির্বাচনী প্রচারণায় সুইজারল্যান্ড আ.লীগ

বিয়ানীবাজার নিউজ২৪’র বার্তা সম্পাদক-যুগান্তর প্রতিনিধি অসুস্থ স্বপনের শয্যা পাশে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ

গোলাপগঞ্জে নৌকার সমর্থনে শিক্ষার্থী সংলাপ

'আমার নেতাকর্মীদের ধরে নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ'- সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি-ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী

সিলেটে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডে ম্যাচ।। মঙ্গলবার রাত থেকে মিলবে টিকেট

বিয়ানীবাজার ক্রিকেট লীগ- ঈগলস ক্লাব খাসাড়ীপাড়াকে হারালো ঘুঙ্গাদিয়া স্পোর্টিং ক্লাব

ঘোষণাঃ