১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

‘আমি নির্বাচন করবো না, উন্নয়নের স্বার্থে নাহিদ ভাইকে সমর্থন জানাবো’- সাবেক সাংসদ ড. সৈয়দ মকবুল

https://i2.wp.com/beanibazarnews24.com/wp-content/uploads/2018/11/lesu-nahid.jpg?resize=1200%2C630

সিলেট-৬ আসনের দু’বারের সাবেক স্বতন্ত্র জাতীয় সংসদ সদস্য  ড. সৈয়দ মকবুল হোসেন (লেচু মিয়া) আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী না হওয়ার অনানুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছেন। আজ শনিবার দুপুরে বিয়ানীবাজারনিউজ২৪ কে বিষয়টি অবগত করেছেন সাবেক এ সাংসদ। তিনি বলেন, আমি নির্বাচন করবো না, তবে নাহিদ ভাইকে ভোট দিতে আমার স্বজন ও প্রিয়জন-সমর্থকদের আহবান জানাবো।

সাবেক সাংসদ ড. সৈয়দ মকবুল হোসেন লেচু বলেন- ‘একটি মহল আমি নির্বাচন করবো বলে অপপ্রচার চালিয়ে জনগণ ও নিজেদের দল থেকে সুবিধা নিতে চাচ্ছে। অথচ এ বিষয়ে কোনো সাংবাদিক আমার সাথে কথাই বলেনি।’

এসময় তিনি আসন্ন নির্বাচনে গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার উপজেলার উন্নয়নে পরীক্ষিত, যোগ্য ও দক্ষ ব্যক্তিকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ভাই একজন ভালো এবং সজ্জ্বন ব্যক্তি। তিনি মানুষকে সম্মান দিতে জানেন। কিন্তু কিছু লোক নিজেদের স্বার্থের সুবিধা আদায় করতে না পেরে তাঁর বিরুদ্ধে নানা ধরণের প্রপাগাণ্ডা ছড়াচ্ছে। তবে শেষ পর্যন্ত এরাই নাহিদ ভাইকে ভোট দিবে বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস রয়েছে। কারণ এরকম ক্লিন ইমেজের রাজনীতিবিদ এ যুগে খোঁজে পাওয়া অনেক দুষ্কর।’

বিয়ানীবাজারনিউজ২৪ এর সাথে আলাপকালে ড. সৈয়দ মকবুল হোসেন লেচু মিয়া জানান, ‘এখন আমার অবসর নেয়ার সময় হয়েছে। এজন্য আমি আর নির্বাচন করবো না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ জনগণ চাইলে কি করবেন এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দুই উপজেলার অনেকেই আমাকে প্রার্থী হওয়ার জন্য অনুরোধ করছেন। তবে আমি তাদেরকে না করে দিয়ে বলেছি, ‘নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলে আমি বিজয়ী হলেও জনগণকে সেভাবে সার্ভিস দিতে পারবো না। তাই আমি নির্বাচন না করার সিদ্ধান্তে অটল থাকবো।’

এসময় তিনি আরোও বলেন, ‘আমার জনপ্রিয়তা আছে বলেই কী সারাজীবন নির্বাচন করে যাবো? দুই দুইবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছি, এতে কি স্বাদ তা আমার জানা আছে। নিজের সামান্য সুযোগ-সুবিধার জন্য দুই উপজেলার উন্নয়ন বাঁধাগ্রস্ত হোক- তা আমি কখনোই চাই না। ‘আমি দুই মেয়াদে এলাকার যথেষ্ট উন্নয়ন করেছি। এজন্য মানুষ আমাকে এখনো মনে রেখেছে তাতেই আমি কৃতার্থ। নির্বাচন আসলেই আমাকে কারো কাছে যেতে হয় না, জনগণ আমাকে ভোট দেয়ার জন্য পাগল হয়ে যায়। অথচ অন্যরা ভোট পাওয়ার জন্য কয়েক বছর মানুষের ঘরে ঘরে ঘুরে বেড়ায়। আর এখানেই আমার ব্যক্তিত্ব এবং সংসদ সদস্য হওয়ার সার্থকতা।’

শিক্ষানুরাগী এ সাবেক সাংসদ বলেন, ‘বিয়ানীবাজার ও গোলাপগঞ্জ উপজেলা শিক্ষাক্ষেত্রে অনেক দূর এগিয়েছে। এর নেপথ্য নায়ক এ জনপদের সন্তান শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি। তিনি আমাদেরকে দেশবাসীর কাছে সম্মানীত করেছেন। এজন্য আমাদের উচিত তাঁর জন্য দোয়া করা, তাঁর পাশে দাঁড়ানো।’

বিয়ানীবাজার ও গোলাপগঞ্জ উপজেলাবাসীর প্রিয় ‘ভাইসাব’ খ্যাত লেচু মিয়া নিজে নির্বাচন না করলে তাঁর সমর্থকরা আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনে কাকে ভোট দিবে এমন প্রশ্নের জবাবে বিয়ানীবাজারনিউজ২৪ কে তিনি বলেন, ‘আমার সমর্থকরা এলাকার উন্নয়নে যিনি পরীক্ষিত, সৎ, যোগ্য ও দক্ষ ব্যক্তি,- এমন প্রার্থীকে তাকেই তারা ভোট দিবে বলে আমার বিশ্বাস’। এসময় তিনি জনগনের প্রতি এ জনপদের উন্নয়নের স্বার্থে একজন পরীক্ষিত ব্যক্তি হিসেবে ‘নাহিদ ভাই’কে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবে- এমন প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন।’

আজ শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় নুরুল ইসলাম নাহিদ ফোন করেছিলেন জানিয়ে ড. সৈয়দ মকবুল হোসেন লেচু বলেন, নাহিদ ফোন করেছিলেন। আমি বলেছি বিএনপি;র তালিকায় আমার নাম থাকলেও আমি নির্বাচনে নেই। আপনি কাজ করেন, আমি সাথে আছি। আপনার প্রতি আমার পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।

A+ A-
Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ সংবাদ

আওয়ামী লীগ নেতা আতাউর রহমান চুনু'র ইন্তেকাল।। শিক্ষামন্ত্রী'র শোক

২০১৮ সালের পিএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা দিল ঘুঙ্গাদিয়া একাডেমি

গোলাপগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় আহত হাসান'র অবস্থা আশংকাজনক

বিয়ানীবাজারে ফাঁদ পেতে মেছোবাঘ আটক

সিলেট-০৬ আসনে জাপা'র দলীয় মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে আতাউর রহমান

গোলাপগঞ্জে কলেজ ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ঘোষণাঃ