১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ধন্যবাদ হে নগর পিতা : পরিচ্ছন্ন মানসিকতার জয় হোক

https://i1.wp.com/beanibazarnews24.com/wp-content/uploads/2018/10/college-road-2322.jpg?resize=1200%2C630

অতঃপর মাছ ও সবজিবাজার স্থানান্তরপূর্বক অবৈধ দখলমুক্ত করে একটি পরিচ্ছন্ন নগরির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বিয়ানীবাজার পৌরসভা। পরিচ্ছন্ন নগরি গঠনে উচ্ছেদের এ দাবি ছিল দীর্ঘদিনের। কেবল পৌরবাসী নয়- সমগ্র উপজেলার সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের দাবি ছিল।

সুন্দর ও সফলভাবে উচ্ছেদ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, পৌর মেয়র মোঃ আব্দুস শুকুর এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী আরিফুর রহমানসহ স্থানীয় বিশিষ্টজন দফায় দফায় বৈঠক করেছেন। যার ফলশ্রুতিতে আজকের এই মাইলফলক।

বৈঠক এবং স্থানীয় মানুষের দাবির প্রতি সম্মান দেখিয়ে সবজি ব্যবসায়ীরা সুন্দর মানসিকতার পরিচয় দিয়ে কিচেন মার্কেটে চলে গেলেও অদৃশ্য কারণে মৎস্য ব্যবসায়ীরা কিচেন মার্কেটে যাননি। আমরা যারা এ বিষয়ের সাথে সম্পৃক্ত কিংবা যারা পরোক্ষভাবে জ্ঞাত তারা জানি আন্ডার গ্রাউনের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে কিচেন মার্কেটের দ্বিতীয় তলা মৎস্য ব্যবসায়ীদের জন্য প্রস্তুত করা হয়। সেখানে যেতে তারা প্রথমে আপত্তি তুলেননি। কিন্তু পরে গ্রাউন ফ্লোরের এক দফা দাবি জানিয়ে দ্বিতীয় তলা যেতে অপরাগতা দেখান দীর্ঘদিন থেকে পৌরশহরে মাছ বিক্রি করা ব্যবসায়ীরা। যার ফলে খানিকটা বিলম্বিত হয় এই উচ্ছেদ প্রক্রিয়া। শুধু দেরি নয়, ভোগান্তিও হয়েছে প্রচুর তথাপি শেষাবধি দীর্ঘদিনের পুঞ্জিভূত জটিলতার নিরসন হয়েছে; জনজীবনে ফিরে এসেছে স্বস্তির নিংশ্বাস। স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের পাশাপাশি যৌক্তিক এ দাবি আদায়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সচেতন নাগরিক ছিলেন সোচ্চার।

বলা বাহুল্য এই মাছ এবং সবজিবাজার ছিল আমাদের গলার কাঁটা। ময়লা, দুর্গন্ধ আর যানযটে স্থবির ছিল পৌরশহরের এই প্রাণকেন্দ্র। কেবল বিয়ানীবাজার নয় দেশ এবং দেশের বাইরে এ নিয়ে আমাদের এতদ্বঞ্চলের মানুষজনদের যথেষ্ঠ কূটক্তি শুনতে হয়েছে। সময়ের পরিক্রমায় এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার সৃষ্টি হয়েছিল। ভেতরে-বাহিরে প্রশ্ন ওঠেছিল- কবে এই অপরিচ্ছন্ন নগরি থেকে মুক্তি মিলবে?

অতঃপর নগর পিতা মোঃ আব্দুস শুকুরের পরিচ্ছন্ন মানসিকতাই সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন শহরের দিকে একধাপ এগিয়ে নিয়ে গেল বিয়ানীবাজার পৌরসভাকে। একজন আদর্শ এবং দক্ষ মেয়র হিসেবে মোঃ আব্দুস শুকুর দেখিয়ে দিলেন অদম্য ইচ্ছের সঙ্গে চেষ্টার সমন্বয় সাধন করে কঠিন অনেক কিছুই সহজে সমাধান করা যায়। ধন্যবাদ হে নগর পিতা, আপনার পরিচ্ছন্ন মানসিকতার জয় হোক।

প্রিয় মেয়র, কেবল এই উচ্ছেদ নয়, পরিচ্ছন্ন নগরি গড়ে তোলায় আপনার যে দৃঢ় প্রত্যয় ছিল তাঁর খানিকটা বহিঃপ্রকাশ আমরা ইতোমধ্যে দেখেছি। বিশেষ করে দৃশতঃ পরিচ্ছন্নকর্মী নিয়োগ এবং যথাযত তদারকি, ডাস্টবিন বসানো, ড্রেনেজ সংস্কার, বিলবোর্ড সরানোসহ নানাবিধ কার্যক্রম। একই সাথে অদৃশ্য ষড়যন্ত্রকারিদেরও দেখিয়ে দিলেন একটি জনপদের সৌন্দর্য েবৃদ্ধিতে কোন ষড়যন্ত্রই বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে না! জয়তু: শুকুর ভাই।

আমরা চাই, আপনার হাত ধরেই পৌরসভা হোক পরিচ্ছন্ন এবং দুর্নীতিমুক্ত আধুনিক মডেল বিয়ানীবাজার পৌরসভা।

লেখক : সাংবাদিক ও সংগঠক।

A+ A-
Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ সংবাদ

আওয়ামী লীগ নেতা আতাউর রহমান চুনু'র ইন্তেকাল।। শিক্ষামন্ত্রী'র শোক

২০১৮ সালের পিএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা দিল ঘুঙ্গাদিয়া একাডেমি

গোলাপগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় আহত হাসান'র অবস্থা আশংকাজনক

বিয়ানীবাজারে ফাঁদ পেতে মেছোবাঘ আটক

সিলেট-০৬ আসনে জাপা'র দলীয় মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে আতাউর রহমান

গোলাপগঞ্জে কলেজ ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ঘোষণাঃ