২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বিয়ানীবাজার-বড়লেখায় বার বার ধরা পড়া ভিন্নরূপে ভিন্ন নামের একই মোটর সাইকেল চোর

https://i0.wp.com/beanibazarnews24.com/wp-content/uploads/2018/09/chor.jpg?resize=1200%2C630

বিয়ানীবাজার-বড়লেখায় বার বার ধরা পড়া ভিন্নরূপে ভিন্ন নামের একই মোটর সাইকেল চোর। প্রত্যেকবারই জনতার হাতে আটক হওয়া এ মোটর সাইকেল চোরকে স্থানীয় একটি সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণ করলেও প্রত্যেকবার তারা থাকছে ধরাছোঁয়ার বাইরে। ১৪ সেপ্টেম্বর বড়লেখায় জনতার হাতে আটক হওয়ার পর সুজন নাম জানিয়েছে মোটর সাইকেল চোরটি। বিশ্বনাথ উপজেলার শান্তিনগর এলাকার আরিফউল্লাহ পুত্র বলে জানায়। জনতা তাকে পুলিশে সোপর্দ করেন।

জনতার জিজ্ঞাসাবাদে মতিন নামের এক মোটর সাইকেল চোরের সহযোগিতার কথা সে জানিয়েছিলো। কিন্তু বাস্তবে তার দেয়া তথ্য কতটুকু বিশ্বাসযোগ্য সেটাই এখন চিন্তার খোরাক যোগাচ্ছে। বড়লেখায় আটক সুজন নামের মোটর সাইকেল চোর বছর ২০১৪ সালের ২৩ আগস্ট বিয়ানীবাজারের শেওলা ইউনিয়নের গোল্ডেন কমিউনিটি সেন্টার থেকে মোটর সাইকেল চুরি করে পালানোর সময় ধরা পড়ে। ধরা পড়ার  পর মারুফ নাম জানিয়েছিলোকে জনতাকে। এরপর পুলিশের সোপর্দ করার পর আইনের ফাঁকগলে জামিনে বেরিয়ে আসে। চলতি বছরের ৯ আগস্ট বিয়ানীবাজার পৌরশহরের রয়েল কমিউনিটি সেন্টার থেকে মোটর সাইকেল চুরির সময় হাতেনাতে জনতা আটক করে। তখন তার নাম সুমন মিয়া বলে জানান চোরটি। আর ১৪ সেপ্টেম্বর বড়লেখায় আটকের পর নাম জানায় সুজন!

জনতার হাতে আটকের পর তিনবার ভিন্ন তিনটি নাম জানালেও তার সঠিক নাম ও পরিচয় কোনটি সেটাই থেকেছে আড়ালে। তাকে নাম-পরিচয় যথাযথভাবে সনাক্ত করতে পারেনি তদন্ত সংশ্লিষ্টরা। যার ফলে ভিন্নরূপে ভিন্ন নামে মোটর সাইকেল চুরি করছে স্থানীয় সিন্ডিকেটের সহযোগিতায়।

একটি বেসরকারি তথ্যমতে বিয়ানীবাজারে প্রতিবছর শতাধিক মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা ঘটে। চুরি যাওয়া এসব মোটর সাইকেল উদ্ধার না হওয়ায় ভুক্তভোগীরা থানায় লিখিত অভিযোগ কিংবা ডায়রি করতে অনিহা দেখাচ্ছেনে।

বিয়ানীবাজার থানাকে সদ্য বদলি হওয়া ওসি শাহজালাল মুন্সী বলেন, চোর জামিনের বেরিয়ে আসলে চুরি করতে যাওয়া মোটর সাইকেল এখনো আমরা মালিকের কাছে হস্তান্তর করতে পারিনী। আইনি বাধ্যবাধকতা ও জটিলতার কারণে মোটর সাইকেলটি থানায় রয়েছে।

আইন যেখানে অসহায় সেখানে আইনের সেবকদের কি করণীয় সেটাই ধোয়াসা ছড়াচ্ছে। এসব চোরদের নিয়ন্ত্রণ করেতে কিংবা শায়েস্থা করতে প্রয়োজন কঠোর আইনি পদক্ষেপ। কিন্তু আইনের মধ্যে এ কঠোরতা না থাকায় একই চোর ভিন্ন রূপ ও নামে অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে- জানান এক তদন্ত কর্মকর্তা।

বড়লেখার থানার ওসি ইয়াছিন জানান, আটক মোটর সাইকেল চোরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

A+ A-
Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ সংবাদ

বিয়ানীবাজার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী শিক্ষকের বেত্রাঘাতে আহত ।। হাসপাতালে ভর্তি

বিয়ানীবাজারে শিক্ষকের বেত্রাঘাতে শিক্ষার্থী আহত ।। অভিযোগ দায়ের

বিয়ানীবাজারে পুলিশের অভিযানে ছাত্র শিবিরের দুই নেতা গ্রেফতার

বিয়ানীবাজারে মরহুম আয়াছ আলী চৌধুরী মেধা বৃত্তি পরীক্ষা আগামী ২৫ ও ২৬ অক্টোবর

কিডনীজনিত রোগে আক্রান্ত নুর উদ্দিন'র পাশে বিয়ানীবাজার মোটর রাইডার্স

সরকার নতুন কাঠামোগত কর্মপদ্ধতি গ্রহণ করেছে– গোলাপগঞ্জে শিক্ষামন্ত্রী

ঘোষণাঃ