২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বিয়ানীবাজারের সোনাই নদীতে সড়ক-জমি বিলীন

https://i0.wp.com/beanibazarnews24.com/wp-content/uploads/2018/09/sonai-river.jpg?resize=1200%2C630

বিয়ানীবাজার উপজেলার সোনাই নদীতে সড়ক-ফসলি জমি বিলীন হয়েছে। দেড় বছর পূর্বে নদীতে সড়ক ও ফসলি জমি বিলীন হলেও পানি উন্নয়ন বোর্ড ভাঙ্গ রোধে কোন উদ্যোগ নেয়নি। ফলে দিন দিন নদী ভাঙ্গন অব্যাহত থাকায় ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন এলাকাবাসী।

সোনাই নদীর তীর ঘেঁষে বারইগ্রাম-সানেশ্বর সড়ক ২০১৬ সালে সংস্কার করা হয়। ২০১৭ সালের বর্ষা মৌসুমে এ সড়কের বাহাদুরপুর অংশে প্রায় আধা কিলোমিটার নদী ভাঙ্গনের কবলে পড়ে। ফসলি জমি ও সড়ক নদীতে বিলীন হওয়ায় এলাকাবাসী নদী ভাঙ্গন আতংকে রয়েছেন। একই সাথে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছেন বাহাদুরপুর, নিজবাহাদুরপুর, সানেশ্বরসহ কয়েকগ্রামের বাসিন্দারা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নদী ভাঙ্গনে ১২ ফুট প্রশস্ত সড়কের ১০ ফুট বিলীন হয়ে গেছে। একই সাথে নদীর তীর ঘেঁষে থাকা ফসলি জমি তলিয়ে গেছে নদী গর্ভে। নদীতে বিলীন হওয়া সড়কের অবশিষ্ট ২ ফুট অংশ দিয়ে এলাকাবাসী যাতায়াত করছেন। এতে করে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার কবলে পড়েন এলাকার বাসিন্দারা।

স্থানীয় ছফর উদ্দিন বলেন, নদী থেকে সড়ক বেশ দূরত্বে ছিল। মাত্র কয়েক ঘন্টার মধ্যে ফসলি জমি ও সড়কের বিশাল অংশ ভেঙ্গে নদীতে বিলীন হয়ে যায়। বিষয়টি সংশ্লিষ্টদের জানানোর পরও ভাঙ্গন ঠেকানোর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এমনকি কয়েক গ্রামের চলাচলের একমাত্র সড়কটি দেড় বছরে চলাচল উপযোগী করা হয়নি। আমরা অনেকটা ঝুঁকি নিয়ে এ সড়ক দিয়ে চলাচল করছি।
বাহাদুরপুর গ্রামের আব্দুল ওয়াদুদ বলেন, দেড় বছর থেকে কয়েক কিলোমিটর পথ হেঁটে প্রয়োজনীয় কাজ সারতে হচ্ছে। প্রায়ই দুর্ঘটনার কবলে পড়ছেন এলাকাবাসী। উপজেলা সদরে যেতে হলে আগে নিজ গ্রাম থেকে অটোরিক্সা যাওয়া যেত কিন্তু নদীতে সড়ক বিলীন হওয়ার পর থেকে বারইগ্রাম বাজারে এসে গাড়িতে উঠতে হয়।

লাউতা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গৌছ উদ্দিন বলেন, প্রায় দেড় বছর পূর্বে পানি উন্নয়ন বোর্ডে নদী ভাঙ্গন রোধ করতে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেয়ার জন্য লিখিত আবেদন করেছি। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে দায়িত্বশীলরা গত শীত মৌসুমে তদন্ত আসেন। কিন্তু ভাঙ্গনের দেড় বছর পেরিয়ে গেলেও ভাঙ্গন রোধে কোন উদ্যোগ নেয়া হয়নি।

সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম বলেন, নদী ভাঙ্গন কবলিত অংশে অনুন্নোয়ন রাজস্ব খাত থেকে সড়কের মেরামত কাজ ও নদী ভাঙ্গন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন, মেরামত কাজ করার বরাদ্ধ আসার সাথে সাথেই দ্রুত সময়ের মধ্যে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

A+ A-
Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ সংবাদ

চান্দগ্রাম-মৌলভীবাজার আঞ্চলিক মহাসড়কে সংস্কার কাজে ধীরগতি ।। স্থানীয়দের দুর্ভোগের অন্ত নেই

জিততেই হবে আজ- ফাইনালের আগে টাইগারদের 'ফাইনাল'

বিয়ানীবাজারে আটক দুই শিবির নেতাকে কারাগারে প্রেরণ

গোলাপগঞ্জে ব্যাংক জালিয়াতি করে ৪ লাখ টাকা নিয়ে প্রতারক গ্রাহক লাপাত্তা

গোলাপগঞ্জ পৌরসভা উপ-নির্বাচন ।। আচরণবিধি লংঘনের অভিযোগে দুই প্রার্থীকে জরিমানা

বিয়ানীবাজারে হার্টের রোগে আক্রান্ত কলেজছাত্রী মরিয়ম'র পাশে সেচ্ছাসেবী সংগঠন প্রতিশ্রুতি

ঘোষণাঃ