২২শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ৭ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সর্বনাশা তীর খেলায় আচ্ছন্ন বিয়ানীবাজার-গোলাপগঞ্জ ।। তীর খেলা বন্ধ করতে ব্যর্থ পুলিশ 

https://i2.wp.com/beanibazarnews24.com/wp-content/uploads/2017/11/tir-khela.png?resize=720%2C400

ভারতের মেঘালয় রাজ্যের রাজধানী শিলংয়ে অনুষ্ঠিত ‘তীর খেলা’য় ক্রমশঃ ছড়িয়ে বিয়ানীবাজার ও গোলাপগঞ্জ উপজেলার সর্বত্র। শিলং তীর খেলার নেশার এরই মধ্যে বহু পরিবার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। ক্ষুদ্রে ব্যবসায়ীরা হারিয়েছে। দাবি উঠেছে তীর খেলার এজেন্টের খোঁজে বের করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার।

শুধু ক্ষুদে ব্যবসায়ী নয়- তীর খেলা কিংবা মীরকি খেলার নামে জুয়া খেলায় জড়িয়ে পড়ছে নিম্ন আয়ের মানুষ। এতে সমাজে অনেত ধরনের অপরাধ বৃদ্ধি পাচ্ছে। অথচ প্রশাসন লোক দেখানো অভিযান চালিয়ে-ই তাদের কাজ শেষ করে। তীল খেলার নেপথ্যের হোতারা থাকে ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

দিন যত যাচ্ছে শিলং তীরের প্রবণতা ততই বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর এ খেলার মূল টার্গেটের শিকার হচ্ছে যুব সমাজের বড় একটি অংশ। সরাসরি জড়িয়ে পড়ে শিলং তীর নামক জুয়ায় সর্বশান্ত হয়েছে অনেকেই। এ জুয়ায় মত্ত্ব উপজেলার ক্ষুদে ব্যবসায়ী, অটোরিক্সা, মাইক্রো চালক, বিভিন্ন রেস্টুরেন্টের কর্মচারী, বাদ পড়ছে না রিক্সা চালকও। এছাড়াও শিক্ষার্থীদের একটি অংশ জড়িয়ে পড়েছে এ খেলার নেশা।

জানা যায়, প্রতি সপ্তাহের ছয় দিনই বসছে এই জুয়ার আসর। বিয়ানীবাজারের চারখাই ও রামদাসহ বেশ কয়েকটি বাজার এলাকা এবং গোলাপগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন বাজার-হাট ছোট ছোট দোকান, ঘর ভাড়া নিয়ে এজেন্টরা ভারতের জুয়ার আসরের সঙ্গে অংশগ্রহণকারীদের সমন্বয় করে।

স্থানীয়রা এ খেলাকে বিভিন্ন নামে ডাকেন, তার মধ্যে মিরকি, টোকা খেলা, নাম্বার খেলা, বোটকা খেলা, ভাগ্য পরীক্ষা খেলা, ডিজিটাল নাম্বর খেলা ডেকে থাকেন। খেলাটির নিয়মানুযায়ী এদেশের এজেন্টদের মাধ্যমে ১-৯৯ পর্যন্ত নাম্বার বিক্রয় করা হয় যে কোন মূল্যে। যত মূল্যে বিক্রয় হবে তার ৭০ গুণ লাভ দেয়া হবে বিজয়ী নম্বরকে। অর্থাৎ ১ টাকায় ৭০ টাকা। একই নম্বর একাধিক লোকও কিনতে পারেন। সবাই কেনা দামের চেয়ে ৭০ গুণ টাকা পাবেন। ভারতের মেঘালয় রাজ্যে চরকির মত একটি চাকা ঘুরে এবং এই চাকা লক্ষ্য করে তীর ছোড়া হয়। যে নম্বরে তীর লাগবে সেই নম্বর দেয়া হয় বিজয়ীদের। এই তীর খেলায় লম্বর কেনা সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলে। ফলাফল ঘোষণা করা হয় প্রতিদিন বিকাল ৫টায়। খেলাটি ভারতের রাষ্ট্রীয় ছুটির দিনসহ প্রতি রবিবার ছাড়া বাকী সকল দিবসে অনুষ্ঠিত হয়।

বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা যায়, সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত অনেকটা প্রকাশ্যে গোলাপগঞ্জ পৌরসভার কদমতলী কলেজ রোডে বোর্ডের মালিক জয়নুল, তার সহকারী হিসাবে নিয়োজিত আছে হেলাল আহমদ, খয়রুল মিয়াম, সাদ্দাম আলী, ঘোষগায় খালপার, বোর্ড এখলাল ও আলাল দুই ভাই, তাদের সহকারী রাজু মিয়া ও জাবেদ হোসেন বলে জানা যায়। উত্তর বাজার বিভিন্ন চায়ের দোকান ও রেস্টুরেন্টে তীর খেলা পরিচালনা করে আনুর। আনুকে পুর্বে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার পুলিশ গ্রেফতার করলেও অজানা কারণে পরে ছেড়ে দেয়া হয়। সদর ইউনিয়নের সেজু আহমদ, ফাজিলপুর জয়নাল ভেরাইটিজ স্টোরের সত্তাধিকারী জয়নাল আহমদ, শেরপুর খলাগ্রামের দিলদার আহমদ। এছাড়া এ খেলা ঢাকাদক্ষিণ, ভাদেশ্বর, হেতিমগঞ্জ বাজারে বেশ কয়েকজন এজেন্ট তীর খেলায় পরিচালনা। সম্প্রতি স্থানীয় হেতিমগঞ্জ বাজারে ভারতীয় তীর খেলায় বৃদ্ধি পেয়েছে।
এদিকে ভারতের শিলং তীর খেলায় উপজেলায় অনাকাঙ্খিত হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় জনমনে আতংক বিরাজ করছে। এ নিয়ে সুশীল সমাজ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের প্রতি আইনী কার্যক্রম বৃদ্ধি করে ভারতীয় তীর খেলা বন্ধে কার্যক্রম পরিচালনার জন্য জোর দাবী জানান। তবে উপজেলা একটি মহলের দাবী, প্রশাসনের কিছু চরিত্রহীন পুলিশ এ খেলার সহায়তা করে যাচ্ছে। তাই প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের এ ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টির আহ্বান জানান।

বিয়ানীবাজারের চারখাই ও রামদা বাজার এলাকার বিভিন্ন হোটেল, মোবাইলের দোকান ও মুদি দোকানে তীর খেলা সকাল থেকে রাত পর্যন্ত। এ খেলার সাথে স্থানীয় অসাধু ব্যক্তিরা জড়িত রয়েছে।

এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার অফিসার এনচার্জ (তদন্ত) মীর মোহাম্মদ আব্দুন নাছের বলেন, ভারতের তীর খেলা বন্ধে আমাদের পুলিশ প্রশাসন তৎপর রয়েছে। আইনের দৃষ্টি এ খেলা একটি জুয়া। আর জুয়া খেলা বন্ধে আমাদের পুলিশ ফোর্স সংবাদ পাওয়া মাত্র অভিযানে পরিচালনা করছে।

A+ A-
Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ সংবাদ

বিয়ানীবাজার পৌর মেয়র যখন ট্রাফিক পুলিশ!

সিলেট-বিয়ানীবাজার সড়কের কাকরদিয়ায় দীর্ঘ যানজট ।। ভোগান্তি চরমে

বিয়ানীবাজারে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত

বিয়ানীবাজারের সালেহ'র উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ সমাবেশ

মুহিব ও দেলোয়ার দ্বিতীয় মেয়াদে বাংলােদশ সেন্টার লন্ডনের ভাইস চেয়ারম্যান-সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত

বিয়ানীবাজারের এসিল্যান্ড বিশ্বজিৎ দেড় মাসের মাথায় বদলী!

ঘোষণাঃ